বিএনপি তত্ত্বাবধায়কের জন্য নির্বাচন বিতর্কিত করছে: তোফায়েল

বিএনপি তাদের তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থার দাবি শক্তিশালী করতে গাজীপুরের নির্বাচন বিতর্কিত করার চেষ্টা করছে বলে মন্তব্য করেছেন  আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ ।  তবে তিনি বলেন, বিএনপি যতো ষড়যন্ত্র করুক না কেন নির্বাচনকে বিতর্কিত করতে পারবে না।

শনিবার দুপুরে ধানমন্ডিতে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “গাজীপুর নির্বাচন নিয়ে বিএনপি নেতাদের কথাবার্তা শুনে তারা ভেবেছিলেন যে,বিএনপি হয়তো নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের মতো গাজীপুর নির্বাচনও বয়কট করবে।”
তোফায়েল আহমেদ বলেন, “সদ্য সমাপ্ত চার সিটি করপোরেশন নির্বাচন যেহেতু সেনাবাহিনী ছাড়াই হয়েছে, তাই গাজীপুরে সেনা মোতায়েনের কোনো যৌক্তিকতা  নেই।” নির্বাচনে ফলাফল প্রকাশের আগ পর্যন্ত বিএনপি নির্বাচন সুষ্ঠু হচ্ছে না বলে বক্তব্য দিতে থাকে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

আওয়ামী লীগের এই প্রবীণ নেতা জানান, এখন পর্যন্ত গাজীপুরে উৎসবের মধ্যে ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন। ভোট সুষ্ঠু হচ্ছে। কোথাও থেকে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

ভোট কারচুপি হলে সরকারের বিদায় ঘণ্টা বাজবে বলে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুলের বক্তব্য সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘ভোট কারচুপির কোনো সুযোগ নেই। আওয়ামী লীগ সুষ্ঠু ভোটে বিশ্বাসী, তা অনেকবার প্রমাণ দিয়েছে। আর বিএনপি কথায় কথায় সরকারের বিদায় ঘণ্টা বাজান। আগেও বাজিয়ে পারেনি, এবারো পারবে না।’

তোফায়েল অঅহমেদ বলেন, ‘গাজীপুরে তাদের প্রার্থী সুবিধা করতে পারছে না বলেই বিএনপি নানা মিথ্যাচারের আশ্রয় নিয়েছে। কিন্তু জনগণ তাদের এই মিথ্যাচারে কান দেবে না।’

তিনি জানান, ‘আমরা নির্বাচন কমিশনকে বলেছিলাম তারা প্রয়োজন মনে করলে সেনা বাহিনী মোতায়েন করতে পারে। তবে তারা এ ধরনের প্রয়োজন অনুভব করেনি বলে সেনা মোতায়েন করেনি।’

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলী সদস্য মোহাম্মদ নাসিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, ত্রাণ ও দুর্যোগবিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন নাহার লায়লী, উপ-প্রচার সম্পাদক অসিম কুমার উকিল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।