মিশরে আল-বারাদি অন্তর্বর্তী প্রধানমন্ত্রী, মুরসি সমর্থকদের প্রত্যাখ্যান

সেনা অভ্যুত্থানে মিশরে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রথম প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর বিরোধীদলীয় নেতা মোহামেদ আল-বারাদিকে দেশটির অন্তর্বর্তী সরকারের প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

সেনাপ্রধান কর্তৃক নিয়োগকৃত অন্তর্বর্তী নেতা আদলি মনসুরের সঙ্গে আলোচনার পর মুরসি-বিরোধী বিক্ষোভের আয়োজক সংগঠন তামারোদ (বিদ্রোহী) প্রতিনিধিদল এই ঘোষণা দেয়।

অবশ্য, আল-বারাদিকে অন্তর্বর্তী সরকারের প্রধান ঘোষণা দেয়ায় বিস্ময়ের কিছু দেখছেন না বিশ্লেষকরা। কারণ, সেনাপ্রধান আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি যখন মুরসিকে উৎখাতের ঘোষণা দিচ্ছিলেন, তখন পাশেই বসা ছিলেন আল-বারাদি।

এদিকে, আল-বারাদির এই নিয়োগ প্রত্যাখ্যান করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আল-আদাবিয়া স্কয়ারে বিক্ষোভরত ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসির সমর্থকরা। তারা বলেন, যুক্তরাষ্ট্রকে খুশি করতেই তাকে এই পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

তারা বলেন, আল-বারাদি আন্তর্জাতিক আনবিক সংস্থার (আইএইএ) প্রধান থাকার সময় ইরাকে হামলা করতে যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে কাজ করছিল। এখন সে আবার তাদের দালালি করতে চায়।

মুরসি সমর্থকরা বলেন, আল-বারাদি জনপ্রিয়তার অভাবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেননি। আর এখন তিনি প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন। তার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্যই সেনা অভ্যুত্থান দরকার।

অন্যদিকে, ২০১১ সালে মোবারক বিরোধী গণতান্ত্রিক বিপ্লব চলাকালে কারাগার ভেঙ্গে কয়েদিদের পালিয়ে যেতে সহায়তা এবং বিক্ষোভকারী হত্যার সঙ্গে জড়িত কিনা এ বিষয়ে প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসি এবং ব্রাদারহুড নেতাদের সোমবার জিজ্ঞাসাবাদ করার নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রসিকিউটর।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।