সোনাগাজীতে লাথি মেরে গর্ভজাত সন্তান হত্যার অভিযোগ

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার সদর ইউনিয়নের চরখোন্দকার গ্রামের জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে লাথি মেরে গর্ভজাত সন্তানকে হত্যার অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে।
পুলিশ ও ক্ষতিগ্রস্থ পবিরার সূত্রে জানাযায়, চরখোন্দকার গ্রামের জেলে পাড়ায় দুই জেলে পরিবারের মধ্যে জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে গত-সোমবার সুমন জলদাস ও মদন জলদাসের পরিবারের সাথে ভাগ বিতন্ডতার একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে মারামারি ও হাতাহাতি শুরু হয়। হাতাহাতির এক পর্যায়ে মদন জলদাস ও প্রিয় লাল জলদাস সুমন জলদাসের স্ত্রী ৮মাসের অন্তসত্তা সুরলা বালা জলদাসের পেটে লাথি মেরে ফেলে দিয়ে লাড়কি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে চলে যায়। আহতের আত্মচিৎকারে পাশ্ববর্তী লোকজন এগিয়ে এসে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়ীতে রাখে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত  শনিবার সকালে সুরলা বালা জলদাসের প্রচন্ড প্রস্রব বেদনা সৃষ্টি হয়। এর কিছুক্ষণ পর সুরলার মৃত মেয়ে প্রস্রব করে। খবর পেয়ে সোনাগাজী মডেল থানার এস.আই মোহাম্মদ উল্যাহর নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃত মেয়ের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে। এই ব্যাপারে তার স্বামী-সুমন জল দাস বাদী হয়ে মদন জলদাস (৩৫) ও প্রিয়লাল জলদাস (৪০) কে আসামী করে সোনাগাজী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।