পদ্মা সেতু নির্মাণে চীন সরকার দুই দশমিক চার বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগে আগ্রহী

চীন সরকার পদ্মা সেতু নির্মাণে দুই দশমিক চার বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করতে আগ্রহী বলে জানিয়েছেন যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। দেশটি চলতি মাসে এ সমঝোতা চুক্তি স্মারক করতে চেয়েছে বলে জানান মন্ত্রী। মঙ্গলবার সচিবালয়ে যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে চীনের পলি ইন্টার ন্যাশনাল ও এক্মিম ব্যাংকের প্রতিনিধির সঙ্গে বৈঠক শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

 তিনি বলেন, “তাদের প্রস্তাবটি বিবেচনায় নিয়ে ইআরডিতে পাঠানো হয়েছে। সেখানে বিবেচনার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তবে এখনো কী ধরনের চুক্তি হচ্ছে তা বলা যাবে না।” মন্ত্রী বলেন, “দেশের স্বার্থ বিবেচনা করে আমরা এ প্রস্তাবে এগিয়ে যাচ্ছি। প্রস্তাবটি ইআরডিতে পাস হলে পরে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হবে।” কাদের বলেন, “এ চুক্তি হবে সরকার টু সরকার। অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে হবে না। চীনের প্রস্তাব বিশ্বব্যাংকের চেয়ে খারাপ কিছু নয়। বিদেশী বিনিয়োগ আসা ভালো হয়।”
মন্ত্রী বলেন, “চীন সরকার বাংলাদেশে তিনটি বিষয়ের ওপর বিনিযোগ করতে চেয়েছে, একটি পদ্মা সেতু নির্মাণ ও নদী শাসন ব্যবস্থায় এবং ঢাকা- চট্রগ্রামে এলিভেটেট এক্সপে ওয়ের জন্য তারা বিনিয়োগ করবে।”
পদ্ম সেতু নিমাণ প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, “আমরা কাজ শেষ করে যেতে পারবো না, তবে চার মাসে কাজ শুরু করে যেতে পারবো।”
রাজধানীর যানজট প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন,“আমি গুলিস্থান-যাত্রাবাড়ী ফ্লাইওভারে কাজ নিয়ে হতাশ। এটি বাস্তবায়ন করছে স্থানীয় সরকার ও ঢাকা সিটি করপোরেশন। তারা আমাকে বার বার বলেছে এর (ফ্লাইওভারের) কাজ শেষ হচ্ছে। কিন্তু আমি ঘুরে দেখেছি এর কাজ শেষ হতে আরো এক বছরে আগে পারে না।”
তিনি বলেন, “ওরিয়নের পক্ষ থেকে আমাকে বলা হয়েছে ঈদের আগে একটা লাইন খুলে দেয়া হবে।”
গুলিস্থান-যাত্রবাড়ি ফ্লাইওভারের কারণে যানজট বেশি হচ্ছে এমন প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, “খারাপের জন্য প্রস্তুত থাকা আর ভালোর জন্য আশা করা। আমি তাই করছি।”


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।