রাবিতে ছাত্রদলকর্মীদের ওপর পুলিশের গুলি, সাংবাদিকসহ আহত ৭

মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি ) ছাত্রদলকর্মীদের ওপর গুলি চালিয়েছে পুলিশ। এতে সাংবাদিক ও এক ব্যবসায়ীসহ অন্তত সাতজন আহত হয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয় কাজলা গেইটে এই ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- রাজশাহীর আলো পত্রিকার সাংবাদিক সাহাবুদ্দিন আহমেদ, স্থানীয় ব্যবসায়ী বারিকুল ইসলাম, ছাত্রদলকর্মী শুভ, আশিক ও সারোয়ার।  আহতদের রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ছাত্রদলকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।
সূত্র জানায়, বেলা পৌনে ১২টার দিকে রাবি ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আব্দুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে ১৫টি মোটরসাইকেল পশ্চিম পাড়া গেইট দিয়ে ক্যাম্পাসে ঢুকে। মোটরসাইকেল নিয়ে ছাত্রদলকর্মীরা ক্যাম্পাসে মহড়া দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কাজলা গেইটে পৌঁছলে পুলিশ তাদের বাধা দিয়ে পরিচয় জানতে চায়। এ সময় ছাত্রদলকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের কথাকাটাকাটির একপর্যাকে উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট ও টিয়াসেল নিক্ষেপ করে। এতে সাতজন আহত হন।
এ বিষয়ে রাবি ছাত্রদলের আহ্বায়ক আরাফাত রেজা আশিক বলেন, “মামুন অনুমতি ছাড়াই ক্যাম্পাসে মহড়া দিয়েছে তবে পুলিশের আচরণ দেখে মনে হচ্ছে ছাত্রদল কোনো নিষিদ্ধ সংগঠন। তিনি ছাত্রদলকর্মীদের ওপর পুলিশের গুলির ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।”
বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর প্রফেসর তারিকুল হাসান জানান, ক্যাম্পাসে যারাই কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা চালাবে তাদেরকেই শায়েস্তা করা হবে। ক্যাম্পাসে যেকোনো বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
এ বিষয়ে মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অসিত কুমার ঘোষ জানান, ছাত্রদলকর্মীরা ক্যাম্পাসে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চাইলে পুলিশ তাদের বাধা দিয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে বলে তিনি জানান।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।