রায়পুরে বৃদ্ধকে কুপিয়ে দেড় লাখ টাকা ছিনতাই

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার সীমান্তবর্তী চরদুঃখীয়া ইউনিয়নের লড়াইরচর গ্রামের আয়াত উল্যা মৈশাল (৯০) নামের এক বৃদ্ধকে কুপিয়ে খালে ফেলে দিয়ে দেড় লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে এলাকার চিহ্নিত দুই চোরের বিরুদ্ধে। স্থানীয় লোকজন রক্তাক্ত জখম অবস্থায় ওই বৃদ্ধকে উদ্ধার করে রায়পুর মেঘনা হাসপাতাল প্রা: লি:-এ ভর্তি করেন। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) রাত ১০টায় রায়পুর-আলোনিয়া সড়কের কাশিম আলী বেপারির ব্রীজ এলাকায়।

হামলার শিকার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আয়াত উল্যা মৈশাল জানান, জামাতার পাঠানো বুধবার (১০ জুলাই) রায়পুর জনতা ব্যাংক থেকে তোলা দেড় লাখ টাকা নিয়ে নিজ বাড়ি যাচ্ছিলাম। কাশিম আলী ব্রীজ এলাকায় পৌঁছলে একই এলাকার আলী হোসেনের  ছেলে চিহ্নিত চোর মোঃ ফরিদ (২২) ও আবদুর রশিদের ছেলে মোঃ সবুজ (২৩) পথরোধ করে এবং টাকাগুলো নেয়ার চেষ্টা করে। বাধা দিলে তারা আমাকে রড দিয়ে পিটিয়ে ছেনি দিয়ে মাথায় কোপ দিয়ে জখম করে টাকাগুলো ছিনিয়ে আমাকে খালে ফেলে দেয়। পরে স্থানীয় লোকজন আমাকে উদ্ধার করে এ হাসপাতালে ভর্তি করেন। এছাড়াও তারা গত ৬ মাস আগে আমার বাড়িতে ৭ বার চুরি করে। অবশেষে এলাকাবাসীর হাতে আটক হয়ে গণপিটুনি খেয়ে হাজতে যেতে হয়। এ মামলায় আমি বাদি হই। তারা কয়েক মাস চাঁদপুর কারাগারে কারাভোগ করে জামিনে বের হয়ে এসে মামলা তুলে নেয়ার জন্য আমাকে চাপ সৃষ্টি করতে থাকে। মামলাটি প্রত্যাহার না করায় তারা আমার প্রতি এ হামলা চালায়।

যোগাযোগ করা হলে অভিযুক্ত ফরিদ ও সবুজ পলাতক থাকায় তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। তাদের স্বজনদের সাথে সাাত করে বক্তব্য নেয়ার চেষ্টা করলে তারা অপারগতা প্রকাশ করে।

এ ব্যাপারে ১২নং চরদুঃখিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লোকমান পাটওয়ারী জানান, এ ঘটনায় আয়াত উল্যা ও তার পরিবার আমাকে জানিয়েছেন। আমি থানা পুলিশকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছি।

ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ নাজমুল হক বলেন, এ ঘটনায় ওই বৃদ্ধ আমাকে অবহিত করেছেন। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য এসআইকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।