লাকসামে হরতালকারী ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া , গুলি বর্ষন, আহত-১০, আটক-২

লাকসামে জামায়াতের ডাকা হরতালের তৃতীয় দিনে হরতালকারী ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। এতে ২ পুলিশসহ ১০ জামায়াত শিবির কর্মী আহত হয়েছে। এ সময় লাকসামের বিভিন্ন স্থানে বেশ কিছু গাড়ী ভাংচুর ও ২৩ রাউন্ড গুলি বর্ষন করা হয়েছে। সংঘর্ষের সময়  ২ জামায়াত শিবির কর্মীকে আটক করে পুলিশ।

জানা যায়, হরতারের দিন সকালে কুমিল্লা চাঁদপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের লাকসামের পরানপুর বাজারে হরতালের সমর্থনে জামায়াত শিবির নেতাকর্মীরা ব্যারিকেড সৃষ্টি করলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় উভয় পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। পুলিশ বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে ২৩ রাউন্ড গুলি বর্ষন করে। এক পর্যায়ে পুলিশের সদস্য চন্দ্রিকা ত্রিপুরা ও জহিরুল ইসলামসহ ১০ জামায়াত শিবির কর্মী আহত হয়। এ সময় পুলিশ স্থানীয় জামায়াত নেতা তোফায়েল আহমেদ (২৫) কে আটক করে। আহত জামায়াত শিবির কর্মীদের মাঝে ৪জন গুলিবিদ্ধ বলে জানা গেছে।

এ ছাড়াও কুমিল্লা নোয়াখালী সড়কের লাকসামের চন্দনায় ব্যারিকেড সৃষ্টি করলে ওবাইদুর রহমান ছাইদ নামে এক শিবির কর্মীকে পুলিশ আটক করে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।