এটিএম আজহারের বিরুদ্ধে ৬ অভিযোগ আনুষ্ঠানিকভাবে ট্রাইব্যুনালে দাখিল

বৃহস্পতিবার জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম আজহারুল ইসলামের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী আপরাধের ছয়টি অভিযোগ আনুষ্ঠানিকভাবে ট্রাইব্যুনালে দাখিল করেছে প্রসিকিউশন।

প্রসিকিউটর নুর জাহান বেগম মুক্তা ও প্রসিকিউটর একেএম সাইফুল ইসলাম ট্রাইব্যুনালের রেজিস্ট্রার বরাবর এ অভিযোগ দাখিল করেন। পরে প্রসিকউটর নুর জাহান বেগম মুক্তা সাংবাদিকদের বলেন, জামায়াত নেতা এটিএম আজহারের বিরুদ্ধে ছয়টি অভিযোগে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে। চারটি ভলিয়মে তিনশ’ পৃষ্ঠার এ অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

এর আগে গত ৪ জুলাই মানবতাবিরোধী আপরাধের নয় ধরনের অভিযোগে তদন্ত সম্পন্ন করে তদন্ত সংস্থা প্রসিকিউশন বরাবর তদন্ত রিপোর্ট দাখিল করে।

জামায়াত নেতা এটিএম আজহারের বিরুদ্ধে রংপুর অঞ্চলে ১২২৫ ব্যক্তিকে গণহত্যা, চারজনকে হত্যা, ১৭ জনকে অপহরণ, একজনকে ধর্ষণ, ১৩ জনকে আটক ও ১৩ জনকে নির্যাতন করা এবং শত শত বাড়িঘরে অগ্নিসংযোগের অভিযোগ আনা হয়।

তদন্ত সংস্থা ২০১২ সালের ১৫ এপ্রিল থেকে এ আসামির বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে। এ তদন্ত শেষ করতে একবছর তিন মাস ১১ দিন সময় লেগেছে। তদন্তকালে ৬০ জনেরও বেশি ব্যক্তির সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। তবে মামলায় ২৭ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে।

এর আগে প্রসিকিউশনে এক আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ১১ ফেব্রুয়ারি আজহারকে সেফ হোমে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। গত ৫ ফেব্রুয়ারি জামায়াতের এ নেতাকে তদন্তের স্বার্থে সেফ হোমে নিয়ে একদিনের জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন ট্রাইব্যুনাল।

মুক্তিযুদ্ধের সময় সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে ট্রাইব্যুনালের আদেশে মগবাজারস্থ আজহারের নিজ বাসা থেকে গত বছরের ২২ আগস্ট তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর থেকে তিনি কারাগারে  রয়েছেন।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।