সবুজবাগে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১

বৃহস্পতিবার ভোরে সাভার পৌর এলাকার সবুজবাগ মহল্লায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন।এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন একজন।তার অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গোটা এলাকা ছড়িয়ে পড়েছে উত্তেজনা।অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কায় মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

পুলিশ বলছে, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওই এলাকার ছাত্রলীগের দুই গ্রুপ নিজেদের মধ্যে জড়িয়ে পড়ে সংঘর্ষে। এ সময় স্বপন গ্রুপের নেতাকর্মীরা রামদা নিয়ে হামলা চালায় মিন্টু গ্রুপের ওপর। রামদার কোপে আঘাতে গুরুতর আহত হন ছাত্রলীগকর্মী মিন্টু রঞ্জন ধর (২২) ও ওবায়দুর রহমান বাবুল (২৬)।

এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ কলেজ হাসপাতালে নেবার পর মিন্টু রঞ্জন ধরকে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

গুরুতর আহত ওবায়দুর রহমান বাবুলকে ভর্তি করা হয়েছে বক্ষব্যাধী হাসপাতালে। তার অবস্থাও সংকটাপন্ন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

হতাহতরা ছাত্রলীগের কেউ নয় বলে দাবি করছেন সাভার থানা ছাত্রলীগের আহবায়ক জাহিদুল ইসলাম ফয়সাল।তিনি বলেন, “হতাহতরা যুবলীগ ও বঙ্গবন্ধু আর্দশবাস্তবায়ন লীগের সমর্থক।”

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফারুক হোসেন ছাত্রলীগ কর্মীর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, “উভয় পক্ষের বিরোধের জের ধরেই এ ঘটনা ঘটেছে।”

সাভার মডেল থানার ওসি মোস্তফা কামাল জানান, একটি শিশুকে মারধর করাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় স্বপন ও মিন্টু গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল।তার জের ধরেই এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে বলে জানান তিনি।
এ ব্যাপারে নিহত মিন্টু রঞ্জন ধরের বাবা চিত্ত রঞ্জন ধর বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় একটি মামলা করেছেন।

তিনি জানান, সন্ত্রাসীরা তার ছেলে ও সহযোগীকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. সামসুজ্জামান জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি একটি শিশুকে মারধর করে স্থানীয় সারোয়ার ভান্ডারির ছেলে স্বপন।

এ ঘটনার প্রতিবাদ করলে স্বপনদের সঙ্গে বিরোধের সৃষ্টি হয় মিন্টুর।

দলবল নিয়ে মিন্টু স্বপনদের বাড়ির সামনে দিয়ে যাবার সময় মিন্টু ও তার অনুসারীদের ওপর রামদাসহ ধারারো অস্ত্র দিয়ে হামলা চালায় স্বপন গ্রুপের নেতাকর্মীরা।

এ ঘটনার পর সপরিবারে স্বপন বাসায় তালা ঝুলিয়ে গা ঢাকা দিয়েছে বলে জানান তিনি।  ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।