রায়পুরে ছাত্রী উত্ত্যক্তে বাধা হওয়ায় মা-ভাইকে পিটিয়ে জখম

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় তার মা ও ভাইকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে এলাকার মোঃ রিপন (২৫) নামের এক বখাটের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ছাত্রীর ভাই ওই দিনই লক্ষ্মীপুর আদালতে মামলা করলে তা বিচারক থানা পুলিশকে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সন্ধ্যায় ওই ছাত্রীর নিজ বাড়ি পৌরসভার মধুপুর গ্রামে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, পৌরসভার মধুপুর গ্রামের তোফায়েল আহাম্মদের মেয়ে বালিকা বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী পুর্ণিমা বাড়ি থেকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে একই এলাকার হজু মিয়ার বখাটে ছেলে মোঃ রিপন (২৫) প্রায় সময় প্রেম নিবেদনসহ অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। এ ঘটনায় পুর্ণিমা তার পরিবারকে জানালে তারা রিপনের অভিভাবকদের বিষয়টি অবিহত করেন। এতে রিপন প্তি হয়ে পুর্ণিমার মা মুনিয়া বেগম ও ভাই মাসুমকে রড ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে পালিয়ে যায়। পরে তাদেরকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ঘটনার দিনই আহত মোঃ মাসুম বাদি হয়ে লক্ষ্মীপুর চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বখাটে রিপন, তার ভাই ও মাকে আসামী করে মামলা করে। যা আদালতের বিচারক মামলাটি থানায় রেকর্ড করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন।

এ ঘটনায় যোগাযোগ করা হলে অভিযুক্ত রিপন ও তার পিতা হজু মিয়া জানান, পুর্ণিমার পরিবারের সাথে আমাদের জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল। ওই পরিবারটি অত্যন্ত খারাপ প্রকৃতির লোক। মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার ইস্যু দাড় করিয়ে আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।

রায়পুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নাছিরুল ইসলাম মজুমদার জানান, অভিযুক্ত রাসেলসহ তার পরিবারের বিরুদ্ধে আদালতে দায়ের করা পুর্ণিমার পরিবারের মামলাটি থানায় রেকর্ড করা হয়েছে। এবং তা তদন্ত চলছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।