সোমবার, অক্টোবর 18, 2021
সোমবার, অক্টোবর 18, 2021
সোমবার, অক্টোবর 18, 2021
spot_img
Homeজাতীয়রায়ের খসড়া কপি আংশিক ফাঁস হয়েছে: ট্রাইব্যুনাল

রায়ের খসড়া কপি আংশিক ফাঁস হয়েছে: ট্রাইব্যুনাল

বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার চূড়ান্ত রায়ের খসড়া কপির কিছু অংশ কোনো-না-কোনোভাবে ফাঁস হয়েছে বলে স্বীকার করেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। এ ব্যাপারে শাহবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে ট্রাইব্যুনালের কেউ জড়িত থাকলে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানানো হয়।

বুধবার দুপুরে ট্রাইব্যুনাল কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রেজিস্ট্রার এ.কে.এম নাসিরউদ্দিন মাহমুদ একথা স্বীকার করেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে রেজিস্ট্রার বলেন, “কথিত খসড়া রায় ট্রাইব্যুনালের কম্পিউটারে কম্পোজ করার পর কোনো না কোনোভাবে ‘লিকড’ হয়েছে। এই বিষয়টি উদঘাটনের লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই ট্রাইব্যুনালের নির্দেশক্রমে রেজিস্ট্রার থানায় ডিজি করেছেন।”
তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, “সত্য বেরিয়ে আসবে এবং এই ষড়যন্ত্রের সঙ্গে কারা জড়িত তাদের চিহ্নিত করা যাবে। ট্রাইব্যুনালে কর্মরত কেউ যদি এই অপরাধমূলক কাজের সঙ্গে জড়িত থাকেন তবে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।”
তিনি বলেন, “প্রকাশিত রায়ের সঙ্গে মূল রায়ের খসড়ার কিছুটা সাদৃশ্য রয়েছে। কিন্তু এটি আদৌ কোনো রায় নয়, যা আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছিল।”
রেজিস্ট্রার বলেন, “কথিত লিকড খসড়া রায়ে কোনো অনুচ্ছেদ নম্বর উল্লেখ নেই। অথচ ট্রাইব্যুনাল ঘোষিত রায়ে অনুচ্ছেদ নম্বর উল্লেখ আছে। একটি সংঘবন্ধ দুষ্টচক্র ট্রাইব্যুনাল ও এর বিচারিক কার্যক্রমকে প্রশ্নবিদ্ধ করতেই এই অপকর্মটি করেছে। যারা এই অপকর্মে সুবিধাভোগী।”
গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন রেজিস্ট্রার বলেন, “গতকাল রায় ঘোষণার পর অভিযুক্ত সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পক্ষে নিয়োজিত আইনজীবী এবং তার স্ত্রী ও পরিবারের সদস্যরা মিডিয়াকে জানায় যে, আনুষ্ঠানিকভাবে রায় ঘোষণার পূর্বেই তা ইন্টারনেটের কিছু ওয়েবসাইটে পাওয়া গেছে। যারা এটিও দাবি করছেন যে, ওই রায় আইন মন্ত্রণালয়ের কম্পিউটারে সংরক্ষিত আছে।”
তিনি বলেন, “সালাউদ্দিন কাদেরের আইনজীবী কোর্টের অফিসার হিসেবে তার দায়িত্ব ছিল কোন কোন ওয়েবসাইটে কথিত খসড়া রায় প্রকাশিত হয়েছে সে বিষয়টি ট্রাইব্যুনালের নজরে আনা। কিন্তু তিনি তা না করে আনুষ্ঠানিকভাবে রায় ঘোষণার পর কথিত খসড়ার কপি দেখিয়ে মিডিয়ার সামনে দাবি করেন যে, রায় আগেই লিকড হয়েছে। এটি একটি ডিকটেটেড রায়।”
তিনি আরো বলেন, “আইনজীবীর এ ধরনের বক্তব্য উদ্দেশ্যমূলক ও অসদাচরণ বটে। এছাড়া এ ধরনের বক্তব্য ট্রাইব্যুনালকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চক্রান্তেরই অংশ।”
সালাউদ্দিন কাদেরের রায় ঘোষণার পর তার আইনজীবী ও পরিবারের সদস্যদের দাবি হাইকোর্টের বিচারপতি শামীম হাসনাইনকে সাক্ষ্য দেয়ার অনুমতি দেননি ট্রাইব্যুনাল, এতে তার অধিকার ক্ষুণ্ন হয়েছে। আসামিপক্ষের এমন দাবি পরিপ্রেক্ষিতে রেজিস্ট্রার বলেন, “তাদের এ অভিযোগ সত্য নয়। কারণ ট্রাইব্যুনালকে ওই বিচারপতির পক্ষ থেকে সম্মতির বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।”


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments