সোমবার, অক্টোবর 18, 2021
সোমবার, অক্টোবর 18, 2021
সোমবার, অক্টোবর 18, 2021
spot_img
Homeজেলালেমুয়াতে সংখ্যালঘুর জমি ক্রয় করে বিপাকে বিএনপি নেতা

লেমুয়াতে সংখ্যালঘুর জমি ক্রয় করে বিপাকে বিএনপি নেতা

ফেনী সদর উপজেলার লেমুয়া ইউনিয়নে মধ্য চাঁদপুর গ্রামের ডাক্তার মনোরঞ্জন বাবুর সম্পত্তি ক্রয় করে বিপাকে পড়েছেন বিএনপি নেতা আলমগীর চৌধুরী। গতকাল বুধবার বিকালে শহরের একটি রেস্টুরেন্টে এক সংবাদ সম্মেলন করে। লিখিত অভিযোগে জানা যায়, গত ২৯ সেপ্টেম্বর বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় ভূমি দস্যুদের হাত থেকে রক্ষার দাবীতে সংবাদ প্রকাশিত হয়। উক্ত সংবাদটি আমার দৃষ্টি গোচর হয়েছে। তিনি বলেন সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। আমার চাচা মরহুম মাহবুবুল হক সাংবাদিক হিসেবে সুনামের সহিত আমৃত্যু সাংবাদিকতা পেশায় ছিলেন। লেমুয়ার চাঁদপুর গ্রামের মনোরঞ্জন তার স্ত্রী শেফালী বালা দেবী ও জামাতা অমৃত দেব নাথ থেকে ৩২২ শতক জমি ক্রয় করি। তার মধ্যে আমার নামে ১৩৯ শতক, ব্যবসায়ীক সহযোগী জহির উদ্দিন জিন্নার নামে ১৪৪ শতক, স্ত্রী খোতেজার সাড়ে ৩৬ শতক জমি ক্রয় করি। মনোরঞ্জন ও শেফালী বালা দেবী ২৫০ শতক জমি বাবত যে সকল জমি অর্পিত সম্পত্তির তালিকা ভূক্ত আছে সেই জমি অবমুক্তির পর রেজিষ্ট্রি করে দিবে মর্মে টাকা নিয়ে যায়। ২৯ সেপ্টেম্বর আমার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন কারী  নজরুল ইসলাম আজাদের পিতা মরহুম হোসেন ভূঞা চাঁদপুর মৌজার ৭৯ শতক ভূমি বিক্রি করে আমার কাছ থেকে নগদ ৬ লাখ টাকা নিয়ে যায়। মৃত্যুর পূর্বে হোসেন ভূঞা আমার স্ত্রী ও ব্যবসায়ী সহযোগীর নামে সাড়ে ৩৭ শতক জমি রেজিষ্ট্রি করে দেন। বাকী জমি রেজিষ্ট্রি করার আগেই তিনি মারা যান। তার পুত্র নজরুল ইসলাম আজাদের কাছে বাকী টাকা ফেরৎ কিংবা জমি রেজিষ্ট্রি করে দিতে বললে সে ক্ষিপ্ত হয়ে উল্টো ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। টাকা না দেয়ায় আমার ক্রয়কৃত জমি থেকে গাছ কেটে ও পুকুরে জাল দিয়ে মাছ লুট করে নিয়ে যায়। বাধা দিলে স্থানীয় জাহিদুল ইসলাম ও কেয়ারটেকার মহিউদ্দিনকে মারধর করে। সে আরো বলেন আমি শুধু মাত্র বিভিন্ন এলাকার লোক হওয়ার কারনে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করে সম্মান ও সামাজিক মর্যাদা ক্ষুন্ন করছে। এসময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জিয়া উদ্দিন মিষ্টার, সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মেজবাহ উদ্দিন খান, এডভোকেট পার্থ পাল, জেলা কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, লেমুয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ফেরদৌস কোরাইশী, সাধারণ সম্পাদক আনিছুল হক, ইউপি সদস্য সাহেনা আক্তার। এছাড়াও খোদ যাদের জায়গা দখল নিয়ে মিথ্যা অপবাদ ছড়ানো হচ্ছে সেই মনোরঞ্জন, স্ত্রী শেফালী বালা দেবী, ৩ কন্যা ও জামাতাসহ হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments