বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 21, 2021
বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 21, 2021
বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 21, 2021
spot_img
Homeজেলাফেনীতে বেপরোয়া সড়ক ডাকাতি: ডিআইজির আগমনে পুলিশের লুকোচুরি

ফেনীতে বেপরোয়া সড়ক ডাকাতি: ডিআইজির আগমনে পুলিশের লুকোচুরি

ফেনীতে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে সড়ক ডাকাতরা। মঙ্গলবার রাতেই আন্ত:জেলার ৩ টি সড়কে ডাকাতি সংগঠিত হয়। আর ডাকাতদের কবলে পড়ে স্বর্বস্ব খুইয়েছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ নেত্রী ও নোয়াখালীর সাংসদ ফরিদুন্নাহার লাইলীর নিকটাত্মীয় ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সদস্য মো: গোলাম আজম। পুলিশ ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে বুধবার দিনভর চেষ্টা করলেও রাত ৯ টার দিকে থানায় মামলা হওয়ায় ঘটনাটি ফাঁস হয়ে যায়। সড়কে একের পর এক ডাকাতির ঘটনায় সর্বত্র উদ্বেগ-উৎকন্ঠা ও আতংক বিরাজ করছে।

এদিকে পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো: নওশের আলী পিপিএম সরকারি সফরে ফেনী আসলে সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্তৃপক্ষ সাংবাদিকদের এড়িয়ে যেতে লুকোচুরি চেষ্টা চালায়। বর্তমান সময়ে ফেনীতে সংগঠিত নানা অপকর্ম ডিআইজির কানে না পৌছতে সাংবাদিকদের আমন্ত্রন জানানো হয়নি।

পুলিশ, ক্ষতিগ্রস্ত সূত্র জানায়, ব্যবসায়ী গোলাম আজম মঙ্গলবার রাতে ব্যক্তিগত গাড়ি করে (ঢাকা মেট্টো-ঘ- ১১-৮০৭৮) চট্টগ্রাম থেকে নোয়াখালীর সুধারাম থানার জালিয়াল গ্রামের বাড়ী যাচ্ছিলেন। রাত ২ টার দিকে তেমুহনী আলাবকস হাঁড় ভাঙ্গার চিকিৎসালয় পার হওয়ার সময় পূর্ব থেকে ওঁৎপেতে থাকা ডাকাতদল পল্লী বিদ্যুতের খুঁটি দিয়ে সড়কে ব্যারিকেড দেয়। এসময় আজম ও তার গাড়ী চালককে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে রাস্তার পাশে ফেলে তার কাছে থাকা লাইসেন্সকৃত পিস্তল, এক নলা বন্ধুক, নগদ টাকা ও গাড়ীটি লুটে নিয়ে যায়।

স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ফেনী আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। কর্তব্যরত ডাক্তার আশংকাজনক অবস্থায় গোলাম আজমকে ঢাকার এ্যাপলো হাসপাতালে প্রেরণ করে। এদিকে সংঘবদ্ধ ডাকাতদল ছিনতাই করা ওই গাড়ী নিয়ে ফেনী-সোনাইমুড়ী সড়কের বিরলীতে অবস্থান নেয়। সেখানে আরেক চালককে পিটিয়ে সিএনজি অটো ট্যাক্সি ছিনতাই করে। এরপর তারা হানা দেয় ফেনী-সোনাগাজী সড়কের চিন্তারপুল নামক স্থানে। এখানে রাত সাড়ে ৩ টার দিকে ব্যবসায়ীরা মাছ ভর্তি পিকআপ (ফেনী-ন-১১-০৪৪৪) নিয়ে সোনাগাজী থেকে ফেনী আসার পথে গতিরোধ করে। মাছ ব্যবসায়ী সদর উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত ইব্রাহীমের ছেলে মো: ইস্রাফিল (৩৫), একই গ্রামের তাজুল ইসলামের ছেলে মো: খায়ের (৩০), সোনাগাজীর আমিরাবাদ ইউনিয়নের আমির হোসেন (৩৫) ও লেমুয়ার আবুল খায়েরের ছেলে লিয়াকত আলী (৪০) কে বেদম মারধর করে ১৬ হাজার ৪শ টাকা ও ৫ টি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। ব্যবসায়ীরা রুবেল উদ্দিন মামুন নামের এক ডাকাতকে ঝাপটে ধরে ফেলে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার সময় তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েকটি ককটেল নিক্ষেপ ও ব্যবসায়ীর কাছ থেকে লুটকৃত পিস্তল দিয়ে গুলি করে। পরে পুলিশ তাদের ধাওয়া করলে ডাকাতদল ছিনতাই করা গাড়ীটি পূর্ব সিলোনীয়ায় রেখে পালিয়ে যায়। পুলিশ গাড়ী সহ সোনাগাজীর তুলাতুলী গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে রুবেল উদ্দিন মামুন (২২) নামের এক ডাকাতকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

গতকাল বুধবার সকালে মামুনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ শহরের নাজির রোড থেকে কুঠিরহাটের ফরিদ আহম্মদের ছেলে মোস্তফা (২৮) ও নাঙ্গলকোর্ট থানার আবদুল্লার ছেলে মো: ইলিয়াছ (২০) কে আটক করে। ইলিয়াছ ষ্টেশান রোডের সূচনা হোটেলের কর্মচারী। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী গোলাম আজমের শ্যালক আসিফ গোফরান বাবু বাদী হয়ে ১০-১২ জনকে আসামী করে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।
ফেনী মডেল থানার ওসি মো: মোয়াজ্জেম হোসেন মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ব্যবসায়ীর ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments