সোমবার, অক্টোবর 18, 2021
সোমবার, অক্টোবর 18, 2021
সোমবার, অক্টোবর 18, 2021
spot_img
Homeজাতীয় রামপালে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র আন্তর্জাতিক অঙ্গনে 'রং সিগন্যাল': টিআইবি

রামপালে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ‘রং সিগন্যাল’: টিআইবি

রামপালে কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশ সম্পর্কে ‘রং সিগন্যাল’ (ভুল বার্তা) দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন দুর্নীতিবিরোধী আন্তর্জাতিক সংগঠন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘জলবায়ু অর্থায়নে সুশাসন’ বিষয়ে টিআইবির একটি প্রতিবেদেন প্রকাশ অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ”সুন্দরবনের কাছে কয়লাভিত্তিক ওই বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণে সরকারি সিদ্ধান্তের ব্যাপারে ইতিমধ্যে আন্তর্জাতিক মহল থেকে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে। দেশের ভেতরেও পরিবেশবাদীরা এর বিরোধিতা করছেন। লং মার্চও হয়েছে। আমরাও চাই সুন্দরবনের কাছে এই প্রকল্পটি না হোক।”

ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ”জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বিশ্বের যেসব দেশ অত্যন্ত ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে, বাংলাদেশ তার মধ্যে প্রথম সারিতেই। আর জলবায়ু পরিবর্তনজনিত এই ঝুঁকি মোকাবেলায় বাংলাদেশ যখন জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য দায়ী শিল্পোন্নত দেশগুলোর কাছে ক্ষতিপূরণ চাচ্ছে, তখন বাংলাদেশ নিজেই সুন্দরবনের কাছে এরকম মারাত্মক পরিবেশ দূষণকারী একটি প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়ে প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে।”

তিনি বলেন, ”জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রাকৃতিক দুর্যোগের হাত থেকে বাংলাদেশকে রক্ষার একটি বড় হাতিয়ার এই সুন্দরবন। সুতরাং কোনোভাবেই এই সম্পদ ধ্বংস করা যাবে না।”

রামপালের এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের সিদ্ধান্তের ফলে জলবায়ু তহবিলে শিল্পোন্নত দেশগুলো যে অর্থ দিচ্ছে এবং ভবিষ্যতে দেবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, সেই সিদ্ধান্ত থেকে তারা সরে আসতে পারে কি না- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ”এটি এখনই বলা মুশকিল। তবে আমরা মনে করি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য রামপালের ওই জায়গাটি উপযোগী নয়।”

এদিকে টিআইবি বিভিন্ন সময়ে সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের দুর্নীতির তথ্য প্রকাশের ফলে অনেক সময়ই সরকারের কোনো কোনো মহল ভুল বোঝে উল্লেখ করে ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ”আমরা সরকারের বিরুদ্ধে নই। বরং আমরা সরকারি প্রকল্পের যেসব জায়গায় সুশাসন ও স্বচ্ছতার অভাব রয়েছে, সেগুলো চিহ্নিত করার চেষ্টা করি যাতে ভবিষ্যতে ওই ভুলের পুনরাবৃত্তি না হয় এবং বিশেষ করে যেসব কাজে বিদেশী অর্থায়ন জড়িত, সেইসব প্রকল্পের অর্থ ব্যয়ে যাতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হয়, সেটির ওপর বিশেষভাবে জোর দিই এ কারণে যে, যাতে করে বিদেশীদের কাছে আমরা জোর গলায় বলতে পারি, তোমাদের দেয়া অর্থ আমরা সঠিকভাবে কাজে লাগাচ্ছি। এ কাজটি টিআইবি করে বিদেশী সহায়তা আরো বেশি করে পাবার জন্য।”

ইফতেখারুজ্জামান জোর দিয়ে বলেন, ”আমরা সরকারের প্রতিপক্ষ নই; বরং সহায়ক।”


সম্পাদনা: শামীম ইবনে মাজহার,নিউজরুম এডিটর

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments