হরতাল কর্মসূচি সংলাপের অন্তরায় নয়: মির্জা ফখরুল

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সংলাপের আহ্বান জানিয়ে বিরোধী দলীয় নেতাকে টেলিফোন করায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেছেন, “পূর্বঘোষিত হরতাল কর্মসূচি সংলাপের অন্তরায় নয়। হরতাল শেষ হলে যেকোনো সময়, যেকোনো স্থানে নির্দলীয় সরকারের বিষয়ে আলোচনা হতে পারে।”

রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে প্রথম দিনের হরতাল চলাকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তার রুমে অনানুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ফখরুল এসব কথা বলেন।

জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে সারাদেশে সফলভাবে হরতাল চলছে দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, “সকাল থেকে এখন পর্যন্ত ফরিদপুরে পুলিশের গুলিতে একজন যুবদল কর্মী নিহত হয়েছে। বিরোধী দলের সভা-সমাবেশের অধিকার হরণ করে এবং নির্যাতন করে কোনো রাজনৈতিক সংলাপ সফল করা সম্ভব না।”

সংলাপ প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, “গত ২১ অক্টোবর নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে বিরোধী দলীয় নেতা সংবাদ সম্মেলন করে একটি প্রস্তাব দিয়েছেন। পরে আমি নিজেও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের কাছে সংলাপের উদ্যগ নিতে চিঠি দিয়েছি। সবশেষ শনিবার রাতে একই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী দলীয় নেতার মধ্যে ফোনালাপের পর আমরা সংলাপের ব্যাপারে আশাবাদী।”

সরকারকে সংলাপের উদ্যোগ নিতে হবে এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, “এটা সরকারের দায়িত্ব। তবে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সর্বদলীয় সরকারের বিষয়ে নয়, সংলাপ হতে হবে নির্দলীয় সরকারের বিষয়ে।”

দুই নেত্রীর ফোনালাপের পর সংলাপ নিয়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মহাসচিব পর্যায়ে কোনো যোগাযোগ হয়েছে কিনা- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, “এখন পর্যন্ত কোনো যোগাযোগ হয়নি। তবে আমরা আশাবাদী।”

সরকারের আচরণের ওপর হরতাল প্রত্যাহার বা স্থগিতের সিদ্ধান্ত হতে পারে- সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল এমন কথা বললেও পরে তিনি বলেন, “হরতাল প্রত্যাহারের সুযোগ নেই।”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।