রবিবার, জানুয়ারী 23, 2022
রবিবার, জানুয়ারী 23, 2022
রবিবার, জানুয়ারী 23, 2022
spot_img
Homeউপজেলা হামিদ আযাদ এমপি’র একান্ত প্রচেষ্টায় মহেশখালী ডিগ্রী কলেজে অনার্স চালু

হামিদ আযাদ এমপি’র একান্ত প্রচেষ্টায় মহেশখালী ডিগ্রী কলেজে অনার্স চালু

কক্সবাজারের মহেশখালীর সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ মহেশখালী ডিগ্রী কলেজের দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর অনার্স কোর্স চালুর পেছনে বাংলাদেশ জামায়াত ইসলামী ঢাকা মহানগরীর নায়েবে আমীর আলহাজ্ব এইচ.এম হামিদুর রহমান আজাদ সাবেক এম.পি সহ সংশ্লিষ্টদের একান্ত প্রচেষ্টা অনস্বীকার্য। প্রাপ্ত তথ্য মতে, ২০০৯ সালের দিকে তৎকালীন জাতীয় সংসদ সদস্য এইচ.এম হামিদুর রহমান আজাদ মহেশখালী ডিগ্রী কলেজের এক সেমিনারে অনার্স কোর্স চালু করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছিলেন। তারই ধারাবাহিকতায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ কলেজ কর্তৃপক্ষকে নানা শর্ত জুড়ে দিয়েছিলেন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দেওয়া শর্ত পূরণ করে অবশেষে মহেশখালী কলেজ অনার্স (রাষ্ট্র বিজ্ঞান ও বাংলা) পরিণত হল। উল্লেখ্য যে, ১৯৮৪ সালে প্রতিষ্ঠা হয় মহেশখালী কলেজ। সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ হওয়া সত্ত্বেও ডিগ্রি(স্নাতক) চালু করার অনুমতি পাচ্ছিলনা।

২০০৯ সালে জাতীয় সংসদ সদস্য এইচ.এম হামিদুর রহমান আজাদ কলেজের সভাপতি মনোনিত হওয়ার পর থেকে তার অকান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে কলেজকে স্নাতক (ডিগ্রি) মান,অর্নাস চালু, কলেজ নতুন ভবন নির্মান, অডিটিউরিয়াম নির্মান, কলেজ ভাউন্ডারী ওয়াল, শিক্ষকদের প্রতিষ্টানিক বেতন নিয়মিত করন, বেসরকারী প্রভিডিয়েন্ড ফান্ড চালু সহ নানা ওয়াদা দিয়েছিলেন সেই সেমিনারে অনার্স কোর্স চালু করার ঘোষনা ও দিয়েছিলেন সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবে পরিনত করেছেন। অর্নাস চালু হওয়ার মহেশখালীবাসী উৎফুল্ল এবং গর্বিত পাশাপাশি পড়–য়া কলেজ ছাত্রছাত্রীদের নানা সমস্যা দুরীর্ভুত হয়েছে। মহেশখালী কলেজের সেই সময়ের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বাবু কানু কুমার চৌধুরী মহেশখালী কলেজে অনার্স কোর্স চালু হওয়ায় এইচ.এম হামিদুর রহমান আজাদ এম.পির ভূয়াসী প্রসংশা করে বলেন, তাঁর ঐকান্তিক চেষ্টাতেই মহেশখালীতে অনার্স পড়ার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

এক সময়ের শিক্ষায় পশ্চাৎপদ মহেশখালী এখন দ্রুত অগ্রসরমান। স্নাতক ও সম্মান পর্যায়ে লেখাপড়ার সুযোগ সৃষ্টি হওয়া তারই প্রমান বহন করে। উল্লেখ্য যে, এইচ.এম হামিদুর রহমান আজাদ এম.পি মহেশখালী কলেজে অনার্স কোর্স চালুর পাশাপাশি আর্থিক সহায়তাও প্রদান করেছেন। তাছাড়া মহেশখালীর সকল রকমের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তাঁর কাছ থেকে আর্থিক সাহায্য সহযোগীতা লাভ করেছে। তাই আজকে সর্বমহলে তিনি ভূয়সী প্রশংসা পাচ্ছে। তাঁর সাথে সাথে মহেশখালীর হাজারো ছাত্র ছাত্রীর উচ্চ শিক্ষা লাভের সুযোগ সৃষ্টি হল। এ ব্যাপারে কলেজ অধ্যক্ষ জসিম উদ্দীন জানান, কলেজ আজ এতটুকু অগ্রসর হওয়ার পেছনে এএইচ এম হামিদুর রহমান আযাদের অবদান অনস্বীকার্য ও তার পাশাপশি নবনির্বাচিত এমপি আশেক উল্লাহ রফিকের সার্বিক সহযোগীতা একান্ত কাম্য।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments