শুক্রবার, অক্টোবর 22, 2021
শুক্রবার, অক্টোবর 22, 2021
শুক্রবার, অক্টোবর 22, 2021
spot_img
Homeজেলা‘প্রয়োজনে চিকিৎসকদের কাছে চাল-ডাল বিক্রি নয়’

‘প্রয়োজনে চিকিৎসকদের কাছে চাল-ডাল বিক্রি নয়’

রাজশাহীতে আয়োজিত মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তারা বলেছেন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে সাংবাদিকদের ওপর হামলাকারী ইন্টার্ন চিকিৎসকদের অবিলম্বে আইনের আওতায় আনতে হবে।

একই সঙ্গে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণে সরকারের প্রতি আহবান জানান তারা। সাংবাদিকদের এ কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে একাত্মতা প্রকাশ করেন রাজশাহী সিটি মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।

এ সময় সংহতি প্রকাশ করে তিনি ঘোষণা দেন ‘সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতন প্রতিরোধে প্রয়োজনে গণআন্দোলন গড়ে তোলা হবে।’

রামেক হাসপাতালসহ সারাদেশে সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর সাহেববাজার জিরো পয়েন্টে মানববন্ধন ও সমাবেশে তারা এসব কথা বলেন।
রাজশাহী সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি এ কর্মসূচির আয়োজন করে। এতে সর্বস্তরের সাংবাদিক ছাড়াও পেশাজীবীরা একাত্মতা প্রকাশ করেন।

এ সময় মেয়র বুলবুল আরো বলেন, ‘কিছু চিকিৎসক মানবিক দৃষ্টিকোণ ভুলে গিয়ে এখন সন্ত্রাসীর ভূমিকা পালন করছে। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে রোগী ধরার ফাঁদে পরিণত করা হয়েছে।

তাঁরা চিকিৎসার নামে অরাজকতা সৃষ্টি করছে। সাংবাদিকদের চিকিৎসা দেয়া হবে না বলে ঘোষণা দিয়ে তাঁরা চরম মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে।’
তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘এই যদি হয় দেশের অবস্থা-তাহলে সাধারণ মানুষ কোথায় যাবে? তাঁরা কোথায় গিয়ে চিকিৎসার নিরাপত্তা পাবে? এভাবে দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা চলতে পারে না। এর একটা সমাধান হওয়া দরকার।

চিকিৎসা পেশায় এসে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত নামধারী চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে সরকারকে এখনই ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।’
মেয়র বুলবুল অভিযুক্ত ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে বিচার বিভাগীয় তদন্তেরও দাবি জানান।

সমাবেশে রাজশাহী ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার আলী বলেন, ‘চিকিৎসকরা তাদের  অপকর্ম ঢাকতে সাংবাদিকদের চিকিৎসা দেবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে।
তিনি বলেন, আজ সাংবাদিকদের চিকিৎসা দিবে না, কাল ব্যবসায়ীদের চিকিৎসা দেবে না, আরেকদিন সাধারণ মানুষের চিকিৎসা দিবে না বলে তারা ঘোষণা দিয়ে যাবে-আর আমরা কি বসে থাকব?

তিনি বলেন প্রয়োজনে আমরাও ওইসব চিকিৎসকদের কাছে আর চাল-ডাল বিক্রি করবো না। তখন তাঁরা কোথায় যাবে-সেটি দেখব।’
রাজশাহী সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক শ.ম সাজুর সভাপতিত্বে সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন কমিটির উপদেষ্টা মোলাজ্জেম হোসেন সাচ্চু, আরইউজে’র একাংশের সভাপতি  আকবারুল হাসান মিল্লাত, সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব মামুন-অর-রশিদ, টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটি’র সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব অপু, আরইউজে’র অর্থ সম্পাদক ফরিদ আক্তার পরাগ, সাংবাদিক আবু সালেহ মো: ফাত্তাহ, আজিজুল ইসলাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ২০ এপ্রিল রামেক হাসপাতালে কর্তব্যরত সাংবাদিকদের উপর হামলা চালায় ইন্টার্ন চিকিৎসকরা। এতে অন্তত ১০ সাংবাদিক আহত হন। সেই সঙ্গে সাংবাদিকদের ক্যামেরা ভাঙচুর করে ছিনিয়ে নেয়া হয়।

এ ঘটনায় ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে সাংবাদিকরা পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করেন এবং দোষীদের গ্রেফতার ও বিচার দাবিতে আন্দোলনে নামেন।
এ ঘটনার পর গত মঙ্গলবার রাজশাহীর একটি দৈনিক পত্রিকার আহত ফটোসাংবাদিককে চিকিৎসাসেবা দেয়া হবে না বলে রামেক হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা ঘোষণা দেন। এতে বাধ্য হয়ে ওই দিন সন্ধ্যায় তিনি হাসাপাতাল ত্যাগ করেন।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments