সকাল থেকে রাত পর্যন্ত গণসংযোগ ব্যস্ত প্রার্থীরা

নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে নির্বাচনী এলাকা ততই সরগরম হয়ে ওঠছে। আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে কুমিল্লা সদর দণি উপজেলা চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা প্রতীক পাওয়ার পর গণসংযোগ ও প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন।  রিটার্নিং অফিসার রাশেদুল ইসলাম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বৈধ প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়ার পর থেকে আওয়ামী লীগ, বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৯ দলীয় জোট ও জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থীরা নির্বাচনী মাঠে কোমর বেঁধে নেমেছেন। তীব্র তাপদাহ কে উপো করে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত প্রার্থীরা নিজেদের পরিচয় সম্বলিত লিফলেট ও মাইক দিয়ে বিভিন্ন প্রকার ছন্দ মিলিয়ে গানের সুরে সুরে প্রচারণার মাধ্যমে ভোটারদের কাছে তাদের মূল্যবান ভোট চাইছেন। কিন্তু নির্বাচনী এলাকার ভোটাররা ভাবছেন ভিন্ন কথা । তারা বলছেন যে সব প্রার্থীরা এলাকার উন্নয়নে কাজ করবে তাদেরকে আগামী ১৯ তারিখের নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করবেন।

 

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থানীয় সরকার নির্বাচন হলেও অঘোষিতভাবে বড় দুটি দলের প্রার্থীদের মধ্যেও রয়েছে পৃথক সমর্থন। চা-স্টল থেকে শুরু করে হাট-বাজার, অফিস-আদালত, যানবাহন ও গ্রামের লোকজনের মুখে মুখে একটাই প্রশ্ন কে হচ্ছে এই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান? আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী গোলাম সারওয়ার নাকি ১৯দল সমর্থিত প্রার্থী মাহাবুব আলম চৌধুরী? নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রচার-প্রচারণার পাশাপাশি উপজেলার সর্বত্রই চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

 

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন-  আওয়ামী লীগ সমর্থিত একক চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম সারওয়ার (কাপ পিরিচ) প্রতীক, ১৯ দলীয় জোটের চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলম চৌধুরী (দোয়াত কলম) প্রতীক, মনিরুল হক চৌধুরী সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী খন্দকার জহিরুল ইসলাম স্বপন (টেলিফোন) প্রতীক, ডা: এ বি এম খোরশেদ আলম (ঘোড়া প্রতীক), জাতীয় পার্টি সমর্থিত প্রার্থী সৈয়দ আব্দুর রাজ্জাক (আনারস) প্রতীক, আব্দুল মমিন মজুমদার (হেলিকপ্টার) প্রতীক, কাউছারুল ইসলাম সুমন (মোটর সাইকেল) প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত একক প্রার্থী আব্দুল হাই বাবলু (টিউবওয়েল) প্রতীক, ১৯ দলীয় জোটের প্রার্থী জামায়াত নেতা হোসাইন মোহাম্মদ নুরুল্লাহ (চশমা) প্রতীক, মনিরুল হক চৌধুরী সমর্থিত প্রার্থী সোহেল চৌধুরী (তালা) প্রতীক, জাতীয় পার্টি সমর্থিত আব্দুল কাদের (জাহাজ) প্রতীক এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত একক প্রার্থী কাজী দেলোয়ারা বেগম (বৈদ্যুতিক পাখা) প্রতীক, ১৯ দলীয় জোটের একক প্রার্থী শাহিনা আক্তার (ফুটবল) প্রতীক ও আওয়ামী লীগের মহিলা নেত্রী কানিজ ফাতেমা (কলস) প্রতীক নিয়ে লড়ছেন।

 

এদিকে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান গোলাম সারওয়ার, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বাবলু ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী দেলোয়ারা বেগম পেরুল ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে দিনভর প্রচারণা ও গণসংযোগ করেন। ১৯ দলীয় জোটের প্রার্থী মাহাবুব আলম চৌধুরী, বাগমারা ইউনিয়নের সৈয়দপুর, দৌলতপুর, বাগমারা বাজার, জয়কামতা, রায়পুর, মান্দারী, চেঙ্গাহাটা, কেশমপাড়, নাওরা, হৃদগড়া, আশকামতা, জয়নগর, সিদুচি, পাইকপাড়া, বরল, দনিয়াখালী এলাকায় দিনভর গণসংযোগ করেন ॥

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।