পুলিশ দম্পতি হত্যা মামলায় গৃহকর্মী সুমির জামিন

পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান ও তার স্ত্রী স্বপ্না রহমান হত্যা মামলায় ওই বাসার গৃহকর্মী খাদিজা আক্তার সুমিকে জামিন দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তার বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করা হয়েছে। আগামী ১৬ জুন এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ জাকিয়া পারভিন শুনানি শেষে চার্জ গঠন করে সুমিকে জামিন দেন।

চার্জ গঠন ও জামিনের বিষয়টি বাংলামেইলকে নিশ্চিত করেছেন তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সৈয়দ নাজমুল হুদা।

এর আগে গত ৯ মার্চ চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলায় ওই দম্পতির মেয়ে ঐশী রহমানসহ (১৯) চার জনের বিরুদ্ধে আদালতে পৃথক দুটি অভিযোগপত্র দেয় গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। চার্জশিটভুক্ত অপর আসামিরা হলেন- ঐশীর বন্ধু আসাদুজ্জামান জনি (২৭), মিজানুর রহমান রনি (২৫) ও গৃহকর্মী খাদিজা আক্তার সুমি। সুমি নাবালগ হওয়ায় তার বিরুদ্ধে আলাদা চার্জশিট দেয়া হয়েছে।

চার্জশিটে গৃহকর্মী সুমির বিরুদ্ধে তার সামনে কফিতে ঘুমের ওষুধ মেশানোর পরও তা মাহফুজ ও স্বপ্না রহমানকে না জানানো কিংবা ঘটনার সময় চিৎকার না দেয়া এবং লাশ গোপন করতে সহায়তার অভিযোগ আনা হয়েছে।

এর পর গত ৬ মে ঐশী তার দুই বন্ধু আসাদুজ্জামান জনি (২৭), মিজানুর রহমান রনির (২৫) বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. জহুরুল হক।

আজ মঙ্গলবার গৃহকর্মী সুমির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করা হলো।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ১৬ আগস্ট রাজধানীর মালিবাগের চামেলীবাগে নিজেদের বাসা থেকে পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের (পলিটিক্যাল শাখা) পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান ও তার স্ত্রী স্বপ্না রহমানের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এর পর দিন তাদের মেয়ে ঐশী রহমান রমনা থানায় আত্মসমর্পণ করে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।