দেশে বিচার থাকলে একদিনেই নির্বাচন বাতিল হতো: খালেদা

গত ৫ জানুয়ারির দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পর্কে বিএনপি চেয়াপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেন, ‘আপনারা দেখেছেন ৫ তারিখের নির্বাচনে ভোটার ছিল না, ছিল কুকুর। আর প্রিজাইডিং অফিসাররা ঘুমিয়েছেন। দেশে যদি কোনো বিচার থাকতো তবে কোর্ট একদিনের মধ্যেই এই নির্বাচনকে বাতিল করে দিতো।’

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে আইনজীবী সমিতির সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী সমিতি এ সমাবেশের আয়োজন করে।

খালেদা জিয়া বলেন, ‘এরা কথায় কথায় নামাজের কথা বলে। যদি আল্লাহর প্রতি একটুও ভয় থাকতো, তাহলে তারা এভাবে কথায় কথায় মিথ্যা বলতো না।
 
খালেদা জিয়া বলেন, ‘নূর হোসেনকে বিদেশে পাঠিয়ে দিয়ে কাজ হবে না। কারা এসব কাজ করেছে তা সবাই জানে। তাই বলছি অবিলম্বে যারা এর সাথে জড়িত তাদের ধরতে হবে।’
 
তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশে তো সামরিক বাহিনী ছিল। কিন্তু তারপরও কেন রক্ষী বাহিনী তৈরি করা হয়েছিল। আজ সেই ৭৫ এর চেয়েও ভয়াবহ অবস্থা বিরাজ করছে। আমরা জাতীয়তাবাদী বলে জনগণের প্রতি দায়িত্বটাও বেশি। এই রক্ষীবাহিনী এখন হয়েছে র‌্যাব।’

র‌্যাবকে বাতিলের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই র‌্যাবকে বাতিল করতে হবে। এই র‌্যাব দিয়ে দেশের ভালো হবে না। টাকার বিনিময়ে এখন তারা মানুষ মারছে। এরা প্রশিক্ষণ নিয়ে এসে শুধু মানুষ খুন করবে আর গুম করবে। এদের কারণে সশস্ত্রবাহিনীর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করবেন না। হোসেন আমেরসহ যে সব আইনজীবিদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে ‘

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।