এ সরকার জনগণের শত্রু, স্বাধীন গণমাধ্যমের শত্রু

‘এ সরকার জনগণের শত্রু, স্বাধীন গণমাধ্যমের শত্রু। তারা যখনই ক্ষমতায় এসেছে, তখনই গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে।’ মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন। রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রথম দফা আমার দেশ বন্ধ ও সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে গ্রেপ্তারের চতুর্থ বার্ষিকী, ‘১ জুন সংবাদ পত্রের নতুন কালো দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ আজ গভীর সঙ্কটে আছে। মানুষ আতঙ্কিত!  এ সরকার অবৈধভাবে এসে, অবৈধ কাজ করে যাচ্ছে। তাই এ সরকারের পতন তরান্বিত করতে হবে। কোনোভাবেই এ সরকারকে ক্ষমতায় থাকতে দেয়া যায় না।’ তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় এসেছে, তখন সংবাদপত্র ও গণতন্ত্রকে হত্য করেছে।’
মাহবুব বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এ সরকারের নিয়ন্ত্রণে নেই। যার প্রমাণ নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনা।’ তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘সরকার আজ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে জনগণ ও সংবাদপত্রের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে।’ মাহবুব আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের ব্যাপারে হাইকোর্ট উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে বলে আশা করছি।’

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি বলেন, ‘মানববন্ধন ও মিছিল করে এ সরকারের পতন ঘটানো যাবে না। এ জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’

তিনি মাহমুদুর রহমানের মুক্তি দাবি করে বলেন, ‘আজ মাহমুদুর রহমানের জীবন সঙ্কটাপন্ন। তিনি অসুস্থ তার চিকিৎসা করা হচ্ছে না।’

একই সঙ্গে দেশবাসীকে মাঠে থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘ আপনারা মাঠে থাকুন আইনজীবীরা আপনাদের পাশে থাকবে।’

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশ) সভাপতি কবি আবদুল হাই শিকদারের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন- সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের সদস্য সচিব এজেডএম জাহিদ হোসেন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশ) সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশ) সাধারণ সম্পাদক এম এ আজিজ, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশ) সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।