একরাম হত্যাকান্ড কাউন্সিলর শিবলু ও জিহাদ চৌধুরীর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

ফেনী জেলার ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি একরামুল হক একরাম হত্যার অন্যতম পরিকল্পনাকারী পৌর কাউন্সিলর আব্দুল্লাহ হিল মাহমুদ শিবলু ও ফুলগাজী উপজেলা আওয়ামীলীগের বহিস্কৃত যুগ্ম সম্পাদক জাহিদ হোসেন ওরপে জিহাদ চৌধুরীকে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নিয়েছেন আদালত।

আজ দুপুরে কাউন্সিলর শিবলু ও বিকেলে জিহাদ চৌধুরীর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নিয়েছেন ফেনীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোহাম্মদ খাইরুল আমিন। দুপুর ১২ টার দিকে ফেনী কারাগার থেকে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে তাকে আদালতে আনা হয়। একই আদালত দু’দফায় তাকে ১৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
অপর দিকে জিহাদ চৌধুরীকে বিকেল ৪ টায় আদালতে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আনা হয়। একরাম হত্যা মামলায় ফেনী পৌর সভার ৫নাম্বার ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুল্লাহ হিল মাহমুদ শিবলু ও জিহাদ চৌধুরীকে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

 

তাদেরকে আরো জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতের কাছে রিমান্ড চাওয়া হবে বলে জানান তিনি। উল্লেখ্য, গত ২০ মে ফেনী শহরের একাডেমী সড়কের বিলাসী সিনেমা হলের সামনে দুর্বৃত্তরা একরামুল হক একরাম কে গুলি করে, কুপিয়ে ও পুড়িয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে।

 

এ ঘটনায় নিহতের বড় ভাই রেজাউল করিম বেলাল বাদী হয়ে বিএনপি নেতা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী মিনারকে প্রধান আসামি করে অজ্ঞাত ৩৫ জনের নামে থানায় মামলা করেন। পুলিশ এ হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত থানার সন্দেহে ও এ হত্যা মামলার আসামি হিসেবে এ পর্যন্ত ২৪ জনকে আটক করেছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।