মাষ্টার না থাকায় ১৬টি রেলওয়ে ষ্টেশন বন্ধ ভোগান্তিতে রেলযাত্রীরা

আরাম দায়ক ও নিরাপদ যথায়াতের জন রেলওয়ে একটি প্রধান মাধ্যম। লোকবল সংকট, নতুন নিয়োগ না থাকায় ও রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আন্তরিকতার অভাবে ১৬টি রেলওয়ে ষ্টেশন স্থায়ী ভাবে বন্ধ হওয়ায় পূর্বাঞ্চলিয় রেলওয়ে যাত্রী ও যান চলাচলে চরম বিঘ্ন ঘটছে।

 
লাকসাম জংশন থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম, ঢাকা-নোয়াখালী, ঢাকা-চাঁদপুর রেল যোগাযোগের কেন্দ্র বিন্দু। এ অঞ্চলে রেলওয়ের দৌলতগঞ্জ, সোনাইমুড়ী, চৌমুহনী, মাইজদী, নাথেরপেটুয়া, চিতোষী, আলীশ্বর, ময়নামতী, রাজাপুর, মন্দভোগ, নাওটী, শর্শদী, খিলা, বজরা, শাহাতলী, মেহের ষ্টেশন বন্ধ থাকায় যাত্রী উঠা নামা ও পন্য পরিবহনে চরম ভোগান্তীর শিকার হয় রেল যাত্রী।

 
এ বিষয়ে পূর্বাঞ্চলিয় রেলওয়ে ট্রাফিক পরিদর্শক (পরিবহন) মোহাম্মদ মাসুদ সরওয়ার জানান, রেলওয়ে দীর্ঘ দিন লোকবল নিয়োগ না থাকায় ও অবসরে যাওয়ার কারণে এ ষ্টেশনগুলো স্থায়ী ভাবে বন্ধ রাখতে হয়েছে। লোকবল নিয়োগ পেলে অচিরেই এ সব ষ্টেশন রেল যাত্রী সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।