লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

ভোলার দৌলতখানে উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর অপূর্ব বিশ্বাসের বিরুদ্ধে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জন্য বরাদ্দকৃত প্রশিক্ষণ ভাতা নিয়ে প্রতারণা করে টাকা কম দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

 
এ নিয়ে নেয্য ভাতা বঞ্চিত প্রাথমিক শিক্ষক মহলে চরম ক্ষোভ আর অসন্তোষ বিরাজ করছে। এ ঘটনায় তদন্তপূর্বক ওই অফিসারের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছেন শিক্ষকরা।

 
শিক্ষকদের অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে,  গত ৫ মে থেকে ২০ জুন পর্যন্ত দৌলতখান উপজেলায় ৩৫জন  প্রাক-প্রথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক উপজেলা রিসোর্স সেন্টার (ইউআরসি) থেকে ১৫ দিনের প্রশিক্ষণ নেন।

 
সরকার থেকে প্রশিক্ষন ভাতা হিসাবে প্রশিক্ষনার্থীদের জন্য ৯হাজার ৫শত টাকা বরাদ্দ দেয়। মূল টাকা থেকে ৭/৮শত টাকা ভ্যাট ও অন্যান খরচ বাবাদ কেটে নেয়ার পর শিক্ষকদের ৮হাজার ৭শত টাকার দেয়ার কথা থাকলেও  ইন্সট্রাক্টর অপূর্ব বিশ্বাস নানা খরচ দেখিয়ে অবৈধভাবে প্রশিক্ষনার্থীদের দিচ্ছেন মাত্র ৭হাজার ৭০০টাকা। বাকি ১হাজার টাকা তিনি পকেটে নিচ্ছেন।

 
মোট ৩৫ প্রশিক্ষনার্থীর কাছ থেকে এক হাজার করে তিনি ৩৫হাজার টাকা অবৈধভাবে গ্রহন করছেন। এ নিয়ে শিক্ষক মহলে চরম ক্ষোভের সৃস্টি হয়েছে।
শুধু তাই নয় একই ভাবে তিনি ২য় বেইজের (২১মে- ৪জুন) থেকেও ৩৫হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। শিক্ষকদের প্রশিক্ষনের ভাতা নিয়ে অপূর্ব ভিম্বাসের এহেন দুর্নীতি, অনিয়ম, প্রতারনার বিষয়ে শিক্ষকরা ভয়ে প্রতিবাদ না জানালেও তাদের মাঝে অসন্তোষ বিরাজ করছে।

 
শিক্ষকদের অভিযোগ, ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন না করলে তিনি পরবর্তি বেজ থেকেও টাকা তুলে নিবেন। এতে বঞ্জিত হবে প্রশিক্ষনার্থীরা। শুধু ১৫ দিনের টেনিং থেকেই নয়, ৬ দিনের বিষয় ভিত্তিক প্রশিক্ষন থেকেও ৫শত টাকার করে কম দিচ্ছেন নানা অজুহাত দেখিয়ে।

 
অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে চাইলে ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর অপূর্ব বিশ্বাস বলেন, শুধু দৌলতখান উপজেলা নয়, অন্য উপজেলা থেকেও এ ধরনের টাকা নেয়া হয়।
তবে তার বক্তব্যের অনুসন্ধান করতে গিয়ে তার কথার সত্যতা মেলেনি।

 
জানতে চাইলে বোরহানউদ্দিন উপজেলা রিসোর্স সেন্টার ইন্সট্রাক্টর মো: মমিন বলেন, শিক্ষকদের প্রশিক্ষন ভাতার কোন অংশ কাটা হয়না, প্রশিক্ষনার্থীদের শুধু ভ্যাট কেটে পুরো টাকা দেয়া হয়। তিনি বলেন, প্রশিক্ষনার্থী শিক্ষকদের ৮হাজার ৭শত টাকা দেয়া হয়।

 
এ ব্যাপারে ভোলা প্রাইমারী ট্রেনিং সেন্টার (পিটিআই) সুপার শিশির সবনম বলেন, এ ধরনের অভিযোগও আমি পাইনী, বিষয়টি আমার জানা নেই, তবে খোজ নিয়ে তদন্ত করে দেখা হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।