‘জাপা আর্জেন্টিনার স্ট্রাইকার না উরুগুয়ের গোলকিপার’

জাতীয় পার্টি সরকারে নাকি বিরোধী দলে, এতদিন এই প্রশ্ন ছিল বাইরের লোকদের। এবার খোদ পার্টির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জি এম কাদের এ প্রশ্ন তুলেছেন। মন্ত্রিত্বের লোভে জাতীয় পার্টির অনেক নেতা সরকারের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে বলেও অভিযোগ তার।

 

বুধবার দুপুরে রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্সে জাতীয় মৎস্যজীবী পার্টির প্রতিনিধি সম্মেলনে জিএম কাদের এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে জিএম কাদের বলেন, “সরকার ও বিরোধীদলে এক সঙ্গে জাতীয় পার্টির অবস্থান সংবিধানের লঙ্ঘন। জাপা সরকারে না বিরোধী দলে এটা পরিষ্কার করা দরকার। জাপা আর্জেন্টিনার স্ট্রাইকার না উরুগুয়ের গোলকিপার জাতি তা জানতে চায়।”

 

চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের উপস্থিতিতে দলীয় সভায় তিনি এই মন্তব্য করলে তোলপাড় শুরু হয়। সভা ছেড়ে চলে যান দলের মহাসচিব জিয়াউদ্দিন বাবলু। এ সময় এরশাদের পাশে বসা বাবলুকে দু’জন প্রেসিডিয়াম সদস্য হাত ধরে অনুরোধ করলেও তাকে ফেরাতে ব্যর্থ হন।

 

মহাসচিব চলে যাওয়ার সময় জিএম কাদের বলে ওঠেন, আমি এ কারণে বক্তব্য দিতে চাইনি। আমার কথা আপনাদের ভালো লাগবে না। পরে এরশাদ তার বক্তব্যে স্বীকার করেন জাতীয় পার্টিতে মতভেদের কথা। তিনি জানান দলে নানা বিষয়ে মতবিরোধ আছে। সেগুলোর সমাধান করবেন তিনি।

 

আগামী নির্বাচনে জিতে জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় আসবে বলেও আশা করেন এরশাদ। তিনি বলেন, দেশের মানুষ দুই দলকে চায় না। আর বিএনপির নেতৃত্ব নিয়ে দ্বন্দ্ব থাকায় জাতীয় পার্টি অচিরেই দ্বিতীয় বৃহত্তম দল হবে বলেও মনে করেন এরশাদ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।