শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
spot_img
Homeউপজেলালাকসামে শিক্ষার্থীর নাম পরিবর্তন করে উপবৃত্তির টাকা জালিয়াতির অভিযোগ

লাকসামে শিক্ষার্থীর নাম পরিবর্তন করে উপবৃত্তির টাকা জালিয়াতির অভিযোগ

কুমিল্লার লাকসামে শিক্ষার্থীর নাম পরিবর্তন করে উপবৃত্তির টাকা জালিয়াতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্কুলের পরিচালনা কমিটি ও শিক্ষকদের প্রস্তাবিত নামের তালিকা থেকে হতদরিদ্র কাঠ মেস্ত্রী আলী আক্কাছের মেয়ে মোসাঃ হাজেরা আক্তার মায়মুনার নাম বাদ দিয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক মনির আহমেদ জালিয়াতি করে তার মেয়ে তানজিলা আহমেদ তারিনের নাম উপবৃত্তির তালিকায় বসিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

 
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার স্বনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নবাব ফয়েজুন্নেছা ও বদরুন্নেছা যুক্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর উপবৃত্তির জন্য তালিকা নির্ধারন করেন বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ ও শিক্ষক মন্ডলী। এতে উপজেলার উত্তর পশ্চিমগাঁও (আমুদা) গ্রামের কাঠ মেস্ত্রী হতদরিদ্র আলী আক্কাছের মেয়ে হাজেরা আক্তার মায়মুনার (আইডি নং-৩৫০৬) নামসহ ৭৬জন ছাত্র-ছাত্রীর নামের তালিকা কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডে পাঠানো হয়, যাতে তানজিলা আহমেদ তারিনের নাম ছিল না।

 
কিন্তু রহস্যজনক কারন হয়ে দাঁড়ায় বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ ও শিক্ষক মন্ডলীর বাচাইকৃত তালিকা থেকে হাজেরা আক্তার মায়মুনার নাম বাদ দিয়ে প্রতিষ্ঠানের সহকারী প্রধান শিক্ষক মনির আহমেদ একক সিন্ধান্তে তার মেয়ে তানজিলা আহমেদ তারিনের নাম সংযুক্ত করে দেয়া। উপবৃত্তির চূড়ান্ত তালিকা শিক্ষাবোর্ড থেকে অনুমোদিত হয়ে স্কুলে এসে পৌঁছলে নাম পরিবর্তনের বিষয়টি জানাজানি হলে পরিচালনা পর্ষদ, শিক্ষক মন্ডলী ও অবিভাবক মহলে চরম অসন্তোষ দেখা দেয়। উপবৃত্তি থেকে বঞ্চিত শিক্ষার্থীর পিতা আলী আক্কাছ পরিচালনা পর্ষদের নিকট অভিযোগ করেন।

 
স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষকের মেয়ে তানজিলা আহমেদ তারিন সমাপনী পরীক্ষায় এ প্লাস অর্জন করায় টেলেন্টপুলের বৃত্তির তালিকায়ও তার নাম রয়েছে। এদিকে ওই স্কুলের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য আমির হোসেনের মেয়ে ইসফাত জাহান ইতির (আইডি নং-৩০৩১) নামও উপবৃত্তির তালিকায় রয়েছে।

 

কিন্তু ওই পরিচালনা পর্ষদের সদস্য নিজেকে হতদরিদ্র দেখিয়ে উপবৃত্তির তালিকায় তার মেয়ের নাম সংযুক্ত করলেও মূলত পশ্চিমগাঁও বাগান বাড়িতে তার নিজ নামে একটি ৪তলা ভবন ও মাসিক কয়েক লক্ষ্য টাকা আয় রয়েছে। স্কুল পরিচালনা পর্ষদ ও শিক্ষক মন্ডলীর সংযুক্ত নাম বাদ দিয়ে নিজ মেয়ের নাম সংযুক্তের বিষয়ে সহকারী প্রধান শিক্ষক মনির আহমেদ বলেন, আপনারা উপবৃত্তি অফিস থেকে বিষয়টি জেনে নিন।

 
উপবৃত্তির তালিকায় জালিয়াতির বিষয়ে স্কুল প্রধান শিক্ষক খন্দকার রাশেদুল ইসলাম বলেন, ঘটনা সত্য হলে তদন্ত সাপেক্ষে স্কুল পরিচালনা পর্ষদ দায়িদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করবে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments