শুক্রবার, অক্টোবর 29, 2021
শুক্রবার, অক্টোবর 29, 2021
শুক্রবার, অক্টোবর 29, 2021
spot_img
Homeকুমিল্লাগোমতী নদীর ভাঙ্গনের কবলে বিলিনের পথে ২০ গ্রাম ॥ উদাসিন পানি উন্নয়ন...

গোমতী নদীর ভাঙ্গনের কবলে বিলিনের পথে ২০ গ্রাম ॥ উদাসিন পানি উন্নয়ন বোর্ড

কুমিল্লার তিতাস উপজেলায় গোমতী নদীর ভাঙ্গনের ফলে ২০ গ্রাম বিলিন হতে চলেছে। ভাঙ্গনের কবলে ওই গ্রাম গুলোর অনেক বসতবাড়ি, একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও মসজিদও রয়েছে। খবর নিয়ে জনাগেছে, গোমতীর ভাঙ্গনে একের পর এক বিলীন হচ্ছে কলাকান্দি, ভিটিকান্দি নারান্দিয়া ও জিয়ারকান্দি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের বসতবাড়ী, গাছ-পালা ও রাস্তা-ঘাট।

 

বিগত মৌসুমগুলোতে পানি উন্নয়ন বোর্ড বিভিন্ন স্থানে ইটের ব্লক, বালির বস্তাসহ ইত্যাদি ফেলা ভাঙ্গনঠেকানোর চেষ্টা করেছে। কিন্তু ওই সমগ্রী গুলো অপ্রতুল হওয়ায় ভাঙ্গন রোধ হচ্ছে না। স্থানীয়ভাবে লোকজনও বাঁশের বেড়া ফেলে ভাঙ্গন রোধের চেষ্টা চালাচ্ছে। এদিকে বর্ষার শুরুতেই আকস্মিক এ ভাঙ্গনে দিশেহারা হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী। দক্ষিণ নারান্দিয়ার পশ্চিমপাড় ছাড়াও আফজালকান্দি, খানেবাড়ী গৌবিন্দপুর, উত্তর ও দণি মানিকনগর, ঘোষকান্দি, দাসকান্দি, হরিপুর বাজার, দুলারামপুর, দড়িকান্দি, নারায়নপুর, হাইধরকান্দি, আসমানিয়া, নারান্দিয়া পূর্বপাড়, রসুলপুর, জিয়ারকান্দি, শোলাকান্দি ও লালপুর গ্রামের সংলগ্ন অংশেও ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। তবে ভাঙ্গন রোধে ন্যূনতম কোনো ব্যবস্থাই গ্রহণ করেনি পানি উন্নয়ন বোর্ড। গোমতী নদী এখন তিতাস উপজেলা বাসির দুঃখে পরিণত হয়েছে।
সূত্র জানায়, গত ১৯৮২ সাল থেকে তিতাস উপজেলার বিভিন্ন অংশ ভাঙ্গন শুরু হয়, যা অদ্যবধি চলমান রয়েছে। দণি নারান্দিয়া পশ্চিম পাড়ের কয়েকটি বিদ্যুৎ খুঁটি, দণি নারান্দিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও একাধিক জামে মসজিদ নদীতে বিলীন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। গত বছরের পরিসংখ্যানে দেখা যায়, গোমতী নদীর ভাঙ্গনে উল্লেখিত গ্রামগুলো ছাড়াও দাসকান্দি বাজার, ভিটিকান্দি ইউনিয়ন অফিস, খেলার মাঠ এবং হরিপুর বাজার বিলীন হয়ে যায়। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সামিহা ফেরদৌসী জানান, তিতাস অংশে গোমতী নদীর ভাঙ্গন মেরামতের েেত্র পানি উন্নয়ন বোর্ডের কোন আগ্রহ দেখচ্ছে না।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments