শুক্রবার, জানুয়ারী 21, 2022
শুক্রবার, জানুয়ারী 21, 2022
শুক্রবার, জানুয়ারী 21, 2022
spot_img
Homeকুমিল্লাকুমিল্লার ঈদের পোশাক ভারতের দখলে ॥ বাজার হারাতে বসেছে দেশীয় তৈরি পোশাক

কুমিল্লার ঈদের পোশাক ভারতের দখলে ॥ বাজার হারাতে বসেছে দেশীয় তৈরি পোশাক

ঈদকে সামনে রেখে কুমিল্লার বিভিন্ন মার্কেট ও বিপনী বিতান ভারতীয় শাড়ি, কাপড় ও থ্রিপিস সাজিয়ে বসেছেন ব্যবসায়ীরা। এখন প্রায় প্রতিদিনই সীমান্তের ওপার থেকে অবৈধ পথে আসছে এসব পোশাক। ফলে বাজার হারাতে বসেছে দেশীয় তৈরি পোশাক। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, কুমিল্লা জেলার প্রায় ১২০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ভারতীয় সীমান্ত।

 

আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের সজাগ দৃষ্টির মধ্যেও প্রতিদিন এই দীর্ঘ সীমান্তের প্রায় ৬০টি স্থান দিয়ে স্রোতের মতো এ দেশে আসছে ভারতীয় শাড়ি, কাপড় ও থ্রিপিস এবং রাজধানী ঢাকা ও চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন জেলায় যাচ্ছে। নগরীর মার্কেটগুলো ঘুরে দেখা যায়, ইস্টার্ন ইয়াকুব প্লাজা, সাত্তার খান কমপ্লেক্স, খন্দকার হক টাওয়ার, টাউন হল সুপার মার্কেট, এস এ বারি মার্কেট, মনোহরপুর, রাজগঞ্জ, চকবাজার, লাকসাম রোড, ক্যান্টনমেন্ট ময়নামতি সুপার মার্কেটসহ প্রতিটি উপজেলার বিভিন্ন মার্কেটে প্রকাশ্যেই বিক্রি হচ্ছে চোরাই পথে আসা ভারতীয় শাড়ি, কাপড় ও থ্রিপিস। এসব চোরাই পণ্য মাঝেমধ্যে আটক হলেও মার্কেটগুলোতে এ ব্যাপারে  কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয় না বলে জানা গেছে।

কুমিল্লা সদর উপজেলার শিবেরবাজার, তেলকুপি, নিশ্চিন্তপুর, গোলাবাড়ী, শাহপুর, অরণ্যপুর, বিবিরবাজার, সাহাপাড়া, বালুতুপা, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা সীমান্তের উজিরপুর, গোমারবাড়ী, দত্তসার, গাংরা, ফকিরবাজার, কেসকিমুড়া, ডিমাতলী, নানকরা, কালিকাপুর, বাতিসা, আটগ্রাম, চন্ডিপুর, লক্ষ্মীপুর রোড, চৌদ্দগ্রাম জামে মসজিদ রোড, বালিকা বিদ্যালয় রোড, ডাকবাংলো রোড, হাউসবিল্ডিং রোড, বালুজুড়ি, নাটাপাড়া, বীরচন্দ্রনগর, পড়িমর্দ্দার, মতিয়াতুলী, খালাসী মসজিদ রোড, আমানগন্ডা, ঘোলপাশা, জগন্নাথদীঘি, শালুকিয়া, বাবুর্চি, উত্তর বাবুর্চি, ছুপুয়া, সোনাপুর, মীরশানী, বেতিয়ারা, নোয়াবাজার, শিবেরবাজার, উজিরপুর, কৃষ্ণপুর, কোমারডগা, মিয়াবাজার, শীতলিয়া, চান্দশ্রী, কাইছুটি, বসন্তপুর, সাতগড়িয়া, পদুয়া, ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার তেতাভূমি, আশাবাড়ী, নয়নপুর, বাঁশতলী, গঙ্গানগর, দণি তেতাভূমি, সালদানদী, বুড়িচং উপজেলার সংকুচাইল, চরানল, বারেশ্বর, রাজাপুর, পাহাড়পুর, গাজীপুর, কর্নেল বাজার, আনন্দপুর, ফকিরবাজার, নবগ্রাম, কংশনগর, সদর দণি উপজেলার রাজেশপুর, মথুরাপুর, লালবাগ, জগপুর, ভাটপাড়া, শুয়াগাজী, দড়িবটগ্রাম, লামপুর, সুবর্ণপুর, বাণীপুর, চৌয়ারা কনেশতলা রাস্তা, বলারডেফা, একবালিয়া, তালপট্টি, যশোপুর ও সুয়াগঞ্জ, বৌয়ারা, শ্রীপুরসহ সীমান্তের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে ভারত থেকে অবৈধ পথে কাপড় আসছে।

 

বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষি বাহিনী বিজিবি মাঝে-মাঝে অভিযান চালিয়ে ভারতিয় কাপড়ের চালান আটক করলেও চোরাকারবারিরা বসে নেই। সীমান্তে বসবাস কারিদের অভিযোগ চোরাকারবারিরা মাশোয়ারা না দিলে অভিযান চালায় বিজিবি। মাশোয়ারা ঠিকমত ফেলে চোরাকারবারিদের মালামাল বহনকারি গাড়ী পাহারা দিয়ে বিজিবি দেশে প্রবেশ করতে সহযোগিতা করে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments