রবিবার, অক্টোবর 24, 2021
রবিবার, অক্টোবর 24, 2021
রবিবার, অক্টোবর 24, 2021
spot_img
Homeউপজেলাসোনাগাজীতে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে তরুণী ধর্ষন ॥ গ্রেফতার-১ রিমান্ড মঞ্জুর

সোনাগাজীতে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে তরুণী ধর্ষন ॥ গ্রেফতার-১ রিমান্ড মঞ্জুর

সোনাগাজী উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের মধ্যম আহম্মদপুর গ্রামে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে এক তরুণীকে গণ ধর্ষন করেছে ৪ যুবক। এ ঘটনায় পুলিশ ১ ধর্ষক কে গ্রেফতার করেছে।

 

পুলিশ ও তিগ্রস্থ পরিবার সূত্রে জানাযায়, মধ্যম আহম্মদপুর গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে শাহাদাত হোসেন (২৫) একই গ্রামের মোঃ মোস্তফার মেয়ে বকুল আক্তার (১৮) এর সাথে দীর্ঘ দিন থেকে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত-৩০শে জুন সোমবার উভয়ের মাঝে বিয়ের বিষয় নিয়ে বাগবিতন্ডা ও ঝগড়া বিবাদ হয়। এতে শাহাদাত হোসেন ক্ষিপ্ত হয়ে ১লা জুলাই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মোবাইল ফোনে বকুল আক্তারকে বিয়ের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলার জন্য মোবাইল ফোনে বাড়ীর পাশে রাস্তায় আসতে বলে। শাহাদাতের কথামত  বকুল আক্তার বাড়ী থেকে বের হয়ে  রাস্তায় আসামাত্র পূর্ব পরিকল্পীত ভাবে শাহাদাতের নেতৃত্বে ৪ জন যুবক বকুল কে জোর পূর্বক মুখে গামছা পেছিয়ে টেনে হেছড়ে সি,এনজি যোগে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে শাহাদাত সহ ৪জন যুবক তরুণীকে পালাক্রমে গণ ধর্ষন করে।

 

 

এসময় বকুলের পরিবারের লোকজন তাকে বিভিন্ন স্থানে খোজা খুঁজি করে না পেয়ে বাড়ীতে চলে আসে। ঐদিন রাত ৩ টার দিকে পূর্ণরায় ঐ যুবকেরা বকুলকে অজ্ঞান অবস্থার তার বাড়ীর সামনে ফেলে চলে যায়। বকুলের জ্ঞান ফেরার পর তার চিৎকার শুনে পরিবারের লোকজন বেরিয়ে এসে তাকে ঘরে নিয়ে যায়। এরপর পরিবারের লোকজনের কাছে বকুল কে শাহাদাত সহ ৪ যুবক বাড়ী থেকে উঠিয়ে নিয়ে গণ ধর্ষন করেছে বলে জানায়। সকালে বিষয়টি জানাজানি হলে শাহাদাত সহ অন্যান্য যুবকেরা বিষয়টি থানায় বা অন্য কোথাও জানালে বকুলের পরিবারের সবাইকে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করে। এমনকি ঘটনার পরদিন ঐ যুবকেরা বকুলের পরিবারের সদস্যদেরকে বাড়ী ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে বলে। শাহাদাত ও তার বাড়াটে সন্ত্রাসীদের অব্যাহত হুমকির মুখে বকুলের পরিবারের লোকজন বাড়ী ছেড়ে ফেনীতে গিয়ে একটি বাসায় আশ্রয় গ্রহণ করে। গত-মঙ্গলবার বকুল ও তার পরিবারের সদস্যরা সন্ত্রাসীদের চোখকে ফাঁকি দিয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় এসে বকুল আক্তার বাদী হয়ে মধ্যম আহম্মদপুর গ্রামের আমীর হোসেনের ছেলে শাহাদাত হোসেন (২৫), একই গ্রামের হুদনের ছেলে মহি উদ্দিন (২৭), ছাবের আহাম্মদের ছেলে শামীম (৩০), মজিউল হকের ছেলে মিজানুল হক (২৪) কে আসামী করে একটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করে।

 

মামলার পর সোনাগাজী মডেল থানায় অফিসার ইনচার্জ আবু জাফর মোঃ ছালেহ নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে উক্ত মামলার এজাহার নামীয় ১নং আসামী শাহাদাত হোসেনকে গ্রেফতার করে। পরে তাকে আদালতে হাজির করে ৩দিনের রিমান্ড আবেদন করলে, আদালত গ্রেফতারকৃত আসামী শাহাদাতের ১ দিনের পুলিশী রিমান্ড মঞ্জুর করে। মামলার বাদী বকুল আক্তার জানান শাহাদাত প্তি হয়ে তার সঙ্গীদের সহযোগীতায় আমাকে বাড়ী থেকে উঠিয়ে নিয়ে মানুমিয়া চৌধুরী পুকুর পাড়ে নিয়ে ধর্ষন করে বাড়ীর সামনে ফেলে চলে যায়। ধর্ষিতার বড়ভাই সেলিম জানান শাহাদাত কে গ্রেফতারের পর তার অপরাপর সহযোগীরা আমাদের বাড়ীঘরে হামলা ও ভাংচুর চালিয়েছে। তাদের অব্যাহত হুমকির মুখে আমরা চরম নিরাপত্তা হীনতায় জীবন যাপন করছি।  সোনাগাজী মডেল থানায় অফিসার ইন-চার্জ আবু জাফর মোঃ ছালেহ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments