মালয়েশিয়ার এমএইচ ৩৭০-এ নিখোঁজ ভাই এবার মারা গেল মেয়ে

অদ্ভুত এবং এক ভয়ঙ্কর অদৃষ্ট। মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমান এমএইচ ৩৭০ আজও মানব সভ্যতার ইতিহাসে এক রহস্য থেকে গেল। ভারত মহাসাগরের তলায় তন্ন তন্ন করে তল্লাশি চালিয়েও কিছু পাওয়া যায়নি। ধরে নেওয়া হচ্ছে বিমানটি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে। আড়াইশো যাত্রীকেও মৃত বলেই ধরে নেওয়া হয়েছে।

ওই বিমানে ছিলেন অস্ট্রেলিয়ান ভদ্রমহিলা কাইলিন মান-এর ভাই রড বারো ও ননদ মেরি বারো। ফলে দুজনেই আক্ষরিক অর্থ নিখোঁজ এবং সরকারিভাবে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এই দু্র্ঘটনা ও ভাইয়ের মৃত্যুর শোক কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই ফের ট্র্যাজেডি।

বৃহস্পতিবারই মধ্য পঞ্চাশের কাইলি মান জানলেন, মালয়েশীয় যে বিমানটিকে রুশপন্থীরা মিসাইল ছুঁড়ে ধ্বংস করেছে সেটিতে ছিলেন তারই সৎ মেয়ে মেরি রিজ। মেরি রিজও মারা গিয়েছেন বাকি ২৯৮ জন যাত্রীর মতোই।

কাইলি মানের ভাই গ্রেগ বারো জানিয়েছেন, “ঈশ্বরের ওপর থেকে বিশ্বাসটাই চলে গেল। মেয়েটা বহু মাস বাদে বাড়ি ফিরছিল। আর ওকে দেখতেই পাব না। আমাদের পুরনো শোকের ক্ষতটা আবার দগদগে হয়ে উঠল। প্রথমে আমাদের ভাই চলে গেল। তারপর বোনের মেয়েটাও। আমাদের বেঁচে থাকাটাই যেন অর্থহীন মনে হচ্ছে।”

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী টনি অ্যাবর্ট কাইলি মানের পরিবারকে সমবেদনা জানিয়ে ফোন করেছিলেন। সেখানেই ঝরঝর করে কেঁদে ফেলেন ওই অস্ট্রেলিয়ান মহিলা।

এদিকে, বিমান দুর্ঘটনার পর আন্তর্জাতিক চাপের মুখে এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের রোষানলে পড়ে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধবিরতির ডাক দিলেন। ইউক্রেন সীমান্তে গুলিবিনিময় বন্ধ করার ও সেনা কমানোরও ডাক দিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সব সদস্য দেশ দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বিমানে জঙ্গি হানার নিন্দা করে রুশ গেরিলাদেরই দায়ী করেছে। নিরাপত্তা পরিষদ জানিয়েছে, গোটা ঘটনার পূর্ণাঙ্গ, সরেজমিন, স্বাধীন ও নিরপেক্ষ তদন্ত হোয়া দরকার। গোটা তদন্তটাই হোক জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে। রুশ গেরিলাদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ডাক দিলেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজ্জাক।

প্রেসিডেন্ট ওবামা অভিযোগ করেছেন, রাশিয়ার মদতেই রুশ পন্থী গেরিলারা বিমানটিকে বুক মিসাইল ছুঁড়ে ধ্বংস করেছে। রাশিয়া এই দায় এড়াতে পারে না।

এদিকে, বিমানের ধ্বংসাবশেষ পরিষ্কার করতে গ্রাবোভা এলাকায় কাজ করছে ইউক্রেনের পুলিশ, উদ্ধারকারী দল ও গ্রামবাসীরা। সেখান থেকে আপাতত গা ঢাকা দিয়েছে রুশপন্থী গেরিলারা। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ নিরপেক্স ও স্বাধীন তদন্তের দাবি জানিয়েছে। রাশিয়ার কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে মালয়েশিয়ার বিমান সংস্থা ও মালয়েশিয়া সরকার। রুশ গেরিলাদের হাতে রাশিয়ার সেনাবাহিনীর ব্যবহার করা ওই শক্তিশালী মিসাইল গেল কি করে?

মস্কোতে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে গেলেও  দৃশ্যতই অস্বস্তিতে পড়েছেন পুতিন। সেজন্যই সুর নরম করে ইউক্রেনের সঙ্গে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব রাখলেন তিনি।–সংবাদ সংস্থা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।