হঠাৎ করে নয়াপল্টনে নেতাকর্মীদের দাঁড়াতে বারণ

হঠাৎ করে সরগরম নয়াপল্টনের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়। উপলক্ষ নবগঠিত ঢাকা মহানগর কমিটির নেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ আর শোডাউন। তবে নেতাকর্মীদের কার্যালয়ের সামনে দাঁড়াতে দিচ্ছে না আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। নয়াপল্টনে যোগ দিয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

 

রোববার বিকেল তিনটার দিকে কেন্দ্রীয় কার্যায়লয়ে বৈঠকে বসেন ঢাকা মহানগর কমিটির শীর্ষনেতারা। এতে উপদেষ্টা, যুগ্ম আহ্বায়ক ও সিনিয়র সদস্যরা উপস্থিত আছেন।

 
বৈঠক শুরুর আগেই কর্মীরা কার্যালয়ের সামনে জড়ো হন।কেউ কেউ পছন্দের নেতার পক্ষে ও সরকারবিরোধী স্লোগান দেয়।এরপরই তৎপর হয়ে ওঠে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। কার্যালয়ের সামনে থেকে নেতাকর্মীদের সরিয়ে দিতে শুরু করে তারা। এতে কেউ কেউ ক্ষোভ প্রকাশ করলেও প্রতিবাদ না করে স্থান ছেড়ে দেন।

 
কর্তব্যরত একজন পুলিশ কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে নতুন বার্তা ডটকমকে বলেন, “নিরাপত্তার স্বার্থে নেতাকর্মীদের অবস্থান করতে নিষেধ করা হচ্ছে। আমরা কাউকে সরিয়ে দিচ্ছি না।”

 

অন্যদের মতো নয়াপল্টনে আসা যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির একজন সদস্য এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, “এটা কেমন কথা? নিজের দলের কেন্দ্রীয় কার্যারলয়ের সামনে জড়ো হতে দেবে না, এটা স্বৈরাচারী আচারণ।”

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।