গোলাম আযমের জানাজা সম্পন্ন, বায়তুল মোকাররম জনসমুদ্র (ভিডিও)

মানবতাবিরোধী অপরাধে ৯০ বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতের সাবেক আমির অধ্যাপক গোলাম আযমের জানাজা জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার জোহরের নামাজের পর দুপুর একটা ৫০ মিনিটে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। বায়তুল মোকাররম মসজিদের এই জানাজায় শরিক হয়েছেন লক্ষ লক্ষ মানুষ।

নামাজে জানাজার আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন গোলাম আযমের ছেলে আবদুল্লাহিল আমান আযমী এবং জামায়াতের কেন্দ্রীয় প্রচার বিভাগের সহকারী সেক্রেটারি মতিউর রহমান আকন্দ।

মসজিদের উত্তর গেটের এই জানাজায় ইমামতি করেন আবদুল্লাহিল আমান আযমী।

 

এর আগে দুপুর সোয়া একটার দিকে গোলাম আযমের মরদেহ বায়তুল মোকাররমের দ্বিতীয় তলায় নিয়ে রাখা হয়। বাদ জোহর বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে অনুষ্ঠিত হয় বর্ষীয়ান এই ইসলামপন্থী নেতার জানাজা।

 

জানাজায় শরিক হওয়ার জন্য বায়তুল মোকাররম মসজিদের ভেতরে এবং বাইরে সমবেত হয়েছিলেন লক্ষ লক্ষ মানুষ। বেলা এগারটার দিকেই বায়তুল মোকাররম মসজিদ পরিপূর্ণ হয়ে যায়।

বেলা বাড়ার সাথে সাথে মুসল্লিদের উপস্থিতি বায়তুল মোকাররম এলাকা ছাড়িয়ে আশেপাশের বিশাল এলাকাজুড়ে বিস্তৃত হয়।

জানাজা ঘিরে ছিল নিরাপত্তা বাহিনীর কড়া প্রহরা। তবে অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে জানাজা শেষ হয়।

জানাজা শেষ গোলাম আযমের মরদেহ নিয়ে আবার তার মগবাজারের বাসার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়া হয়।

 

শনিবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে গোলাম আযমের মহদেহ নিয়ে রাজধানীর মগবাজারের বাসা থেকে বায়তুল মোকাররম মসজিদের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় দলীয় নেতাকর্মী ও পরিবারের সদস্যা।

এদিকে শনিবার সকাল থেকেই গোলাম আযমের বাসায় সামনে ভীড় করেছেন সারা দেশ থেকে আসা জামায়াতের হাজার হাজার নেতাকর্মী।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাত ১০টা ১০ মিনিটের দিকে ইন্তেকাল করেন কারাবন্দি গোলাম আযম। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।