শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
spot_img
Homeরাজনীতিসংলাপের দরজা খোলা আছে, সংলাপের পূর্বে বিষয়বস্তুগুলো নির্ধারণ করুন: ইনু

সংলাপের দরজা খোলা আছে, সংলাপের পূর্বে বিষয়বস্তুগুলো নির্ধারণ করুন: ইনু

জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ৭১-এ রাজনীতির ভিলেন ছিলো পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী, ৭৫-এ সামরিক শাসক আর এখন খালেদা জিয়া দেশের রাজনীতির ভিলেন। সরকারের সঙ্গে সংলাপ করার ধৈর্য খালেদা জিয়ার নেই বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

 

শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) মিট দ্য রিপোর্টার্স অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন ডিআরইউ সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশা। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ছিলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেন।

 

হাসানুল হক ইনু বলেন, ককটেল হাতে খালেদার সঙ্গে কোনো সংলাপ সম্ভব নয়। সংলাপের জন্য আগে খালেদা জিয়ার গণতন্ত্র ক্লাবের সদস্যপদ নিতে হবে। হাত থেকে ককটেল মাটিতে রাখতে হবে। তবে কীভাবে গণতন্ত্র ক্লাব-এর সদস্যপদ নিতে হবে তার পরিষ্কার ব্যাখ্যা দেননি ইনু।

 

খালেদা জিয়াকে গণতন্ত্রের ‘ভিলেন’ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, একাত্তরের ভিলেন ছিল রাজাকাররা, পঁচাত্তরের ভিলেন ছিলো  সামরিক শাসক আর বর্তমানে গণতন্ত্রের ভিলেন হচ্ছে জঙ্গিবাদ ও খালেদা জিয়া। গণতন্ত্রের ভিলেন খালেদা জিয়াকে মোকাবেলা করা হবে।

 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, দেশে এখন একাত্তরের মতো সন্ত্রাসী কায়দায় নারী-শিশুর ওপর হামলা-নির্যাতন, মানুষ পোড়ানো হচ্ছে। জনগণের ওপর নির্যাতন বন্ধে চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছি আমরা। সারাদেশে আতঙ্ক বিরাজ করলেও ১০-১২টি জেলা ছাড়া সবখানে সন্ত্রাস কমে গেছে।

 

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থার সম্প্রতি প্রকাশিত প্রতিবেদন সঠিক নয় দাবি করে হাসানুল হক ইনু বলেন, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালকে বলব আপনি বুঝে-শুনে রিপোর্ট করুন। আপনি টেরোরিজমকে আড়াল করছেন।

 

বর্তমানে গণমাধ্যম স্বাধীনভাবে কাজ করছে দাবি করে তিনি বলেন, তথ্য মন্ত্রণালয় ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন প্রকার ভয়ভীতি দেখানো হয় না। আর কেউ ভয় দেখালেও আপনারা ভয় পাবেন না। নাশকতার নির্দেশদাতা হিসেবে খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার করা হবে কিনা এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, এটা প্রশাসনের ব্যাপার। তারা সময়মত তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

 

আরেক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি একটি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল। তাদের সহিংসতা চলতে থাকলে তারা অচিরেই সন্ত্রাসবাদী দলে পরিণত হবে। দলটি নিষিদ্ধ বিষয়ে বলেন, এমনটা হলে দেশের সন্ত্রাস আইনের মাধ্যমেই হবে।

 

সংলাপ প্রসঙ্গে ইনু বলেন, ‘সরকারের সঙ্গে যে কোনো দল একটি কার্যকর সংলাপ করতে পারে, সংলাপের দ্বার খোলা আছে। তবে সংলাপের পূর্বে বিষয়বস্তুগুলো নির্ধারণ করতে হবে। কিন্তু সংলাপ করার জন্য যে ধৈর্যের প্রয়োজন সেটা খালেদা জিয়ার নেই। তার এতো অস্থিরতা কিসের? উনি কি এখনই সরকার পতন করতে চান?’

 

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া তার ৭ দফা দাবির কথা বলেছিলেন। এখন আর তার মুখে সে কথা শোনা যায় না। তিনি ৭ দফা পড়া শেষ করতে না করতেই লাগাতার অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করলেন। এর পেছনেও তার গোপন এজেন্ডা রয়েছে। সেটা হচ্ছে তার পরিবার ও দলীয় এজেন্ডা।’

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments