শুক্রবার, অক্টোবর 22, 2021
শুক্রবার, অক্টোবর 22, 2021
শুক্রবার, অক্টোবর 22, 2021
spot_img
Homeরাজনীতি২০ দলীয় জোট হরতাল বাড়ালো বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত

২০ দলীয় জোট হরতাল বাড়ালো বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের চলমান হরতাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে এক বিবৃতিতে এ ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ।

 

বিবৃতিতে বলা হয়, সরকারের পেটোয়া যৌথবাহিনী কর্তৃক নরহত্যা চালিয়ে যাওয়া, দেশব্যাপী ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদেরকে নির্বিচারে খুন, গুম, হামলা-মামলা ও গণগ্রেপ্তার, সাংবাদিক ও সংবাদকর্মী নির্যাতন এবং সংবাদ মাধ্যম নিয়ন্ত্রণ, বিচার ব্যবস্থার ওপর সরকারী নগ্ন হস্তক্ষেপ, বেগম খালেদা জিয়া এবং দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবসহ সকল জেষ্ঠ্য নেতৃবৃন্দ ও বরেণ্য বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দের বিরুদ্ধে অব্যাহতভাবে মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে দেশব্যাপী চলমান অবরোধ কর্মসূচির পাশাপাশি চলমান ৭২ ঘণ্টার শান্তিপূর্ণ হরতাল আগামী ৫ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বর্ধিত করা হলো।

 

বিবৃতিতে বিএনপি ও ২০ দলীয় জোটের সকল নেতাকর্মী ও গণতন্ত্রকামী সকল দেশপ্রেমিক জনগণকে শান্তিপূর্ণভাবে এই কর্মসূচি পালনের জন্য বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে উদ্বাত্ত আহ্বান জানানো হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, বিএনপি চেয়ারপারসন ও ২০ দলীয় জোট নেতা খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে আজ দেশের সকল গণতন্ত্রকামী দেশপ্রেমিক জনতা ঐক্যবদ্ধ। সংবিধান স্বীকৃত সকল মৌলিক অধিকার ও মানবাধিকার, ভোটের অধিকার, জনপ্রতিনিধিত্বশীল সরকার প্রতিষ্ঠা ও ভোটারবিহীন জবরদখলকারী অবৈধ সরকারের পতনের লক্ষ্যে চলমান গণআন্দোলন বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে উপনীত প্রায়।

 

এতে বলা হয়, প্রতিদিন আন্দোলনকারীদের রক্তে রঞ্জিত হচ্ছে কালো রাজপথ। গতকালও সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় জামায়াত নেতা সাইদুল ইসলামকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গুলি করে হত্যা করেছে সরকারের পেটোয়া পুলিশ বাহিনী। বাংলাদেশ বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক আইনের ছাত্র আরিফুল ইসলাম মুকুলকে একইভাবে ডিবি পুলিশ হত্যা করে এবং রূপনগর থানা বেড়িবাঁধ এলাকায় লাশ ফেলে রেখে যায়।

 

বিবৃতিতে বলা হয়, ঠাণ্ডামাথার এইসব হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি আমরা এবং প্রতিবাদ ও বিচার দাবি করছি। দেশপ্রেমিক গণতন্ত্রকামী আন্দোলনকারীদের এই আত্মত্যাগ কখনো বৃথা যাবে না। সমগ্র দেশকে মৃত্যুপুরীতে পরিণত করলেও এই অবৈধ সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। গণতন্ত্র মুক্তি আন্দোলনকে কলুষিত করার ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে এই অবৈধ সরকার। প্রতিদিন সরকারী এজেন্টদের মাধ্যমে পেট্রোল বোমা হামলা চালিয়ে তার দায়দায়িত্ব বিরোধী দলের ওপর চাপানোর অপচেষ্টা চালিয়েই যাচ্ছে এই দানবীয় সরকার। কিছু  সংখ্যক সরকারী মদদপুষ্ট ও নিয়ন্ত্রিত ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়া এই অপপ্রচারে রীতিমত প্রতিযোগিতায় নেমেছে।

 

বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা বারংবার দাবি করছি- এইসব জঘণ্য কর্মকাণ্ডের জন্য দায়ী ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার ও সুষ্ঠু তদন্তেরর মাধ্যমে বিচার করা হোক। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি মেনে নিয়ে দ্রুত পদত্যাগ করে সুষ্ঠু ও অবাধ এবং অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত চলমান শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক আন্দোলন অব্যাহত রাখার জন্য জনদাবির পক্ষে আমরা দৃঢ় প্রত্যয় ঘোষণা করছি।

 

বিবৃতিতে বলা হয়, বিএনপি ও ২০ দলীয় জোট গণতান্ত্রিক অহিংস ও শান্তিপূর্ণ  আন্দোলনে বিশ্বাস করে। এ পর্যন্ত অত্যন্ত কষ্ট স্বীকার করে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন  সংগ্রাম হরতাল-অবরোধ অব্যাহত রাখার জন্য সমগ্র দেশবাসী, বিএনপি ও ২০ দলীয় জোটের সকল নেতাকর্মী ও গণতান্ত্রিক মুক্তি আন্দোলনের সাথে ঐক্যমত পোষণকারী সকল রাজনৈতিক শক্তি ও ব্যক্তিকে আমি অভিনন্দন জানাই।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments