শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
spot_img
Homeকক্সবাজারমহেশখালীতে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ইজারাকৃত জমি নিয়ে তালবাহানা-এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ

মহেশখালীতে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ইজারাকৃত জমি নিয়ে তালবাহানা-এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ

মহেশখালীতে পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রহসনের ইজারা নিয়ে এলাকায় উত্তেজনার অভিযোগ উঠেছে। পাওয়া তথ্যমতে, হামিদারদিয়া মৌজাস্থ পানি উন্নয়ন বোর্ডের একোয়ার ভুক্ত জমি নিয়ে নানান যড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে পানি উন্নয়ন বোর্ডের রাজস্ব অফিসার নাছির উদ্দিন। একোয়ার ভুক্ত জায়গা (বিএস দাগ-৭২,৭৩) ইজারা গ্রহীতা বিগত ৫ বছর যাবৎ জাফর আলম জাবের মেম্বার সরকারী ব্যাট আয়কর সহ যাবতীয় কার্যক্রম ও করেছে তার নবায়নে আবেদনের প্রেক্ষিতে। গত ৩ ডিসেম্বর ১৪ ইং তারিখ পানি উন্নয়ন বোর্ডের রাজস্ব অফিসার নাছির উদ্দিন ইজারা প্রক্রিয়া বাবদ ২৫ হাজার টাকা নিয়া লিখিত প্রত্যয়ন দেন জাবেরকে। সেই সরল বিশ্বাসে জাবের রাজস্ব অফিসারকে পুরোপুরি দায়িত্ব ছেড়ে দেন। নাছির উদ্দিন উক্ত জায়গার নবায়নের ব্যাপারে বিভিন্ন অযুহাত দেখিয়ে কালক্ষেপন করেন। তৎসময় রাজস্ব অফিসারের কাজের প্রতি সন্দেহ পোষন হলে জাবের জেলা পরিষদ প্রশাসক মোস্তাক আহমদ চৌধুরী ও মহেশখালী-কুতুবদিয়ার সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিকের সুপারিশ নিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ড ককসবাজার নির্বাহী প্রকৌশলী বরাবরে লিখিত আবেদন করেন যার স্মারক নং-এল ১১/৩১১৬ তারিখ ১৩ জানুয়ারী ১৫ ইং। নাছির উদ্দিন অপকৌশল হাতে নিয়ে ১৫ জানুয়ারী ১৫ ইং তারিখ অন্যজনকে ইজারা দিয়েছে মর্মে জানান । এই সংবাদ শুনে জাবের মর্মাহত হয়ে সহকারী জর্জ আদালত মহেশখালী মামলা দায়ের করে।

মামলা অপর ০৫/১৫ ইং মুলে মামলা দায়ের করে স্থিতিশীল বজায় রাখার জন্য আবেদন করে উক্ত মামলার সুত্রে ককসবাজার জেলা আইনজীবি সমিতির বিজ্ঞ আইনজীবি এডভোকেট মোস্তাক আহমদ ৮ ফেব্রুয়ারী ১৫ ইং লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করেন নির্বাহী প্রকৌশলীকে। বর্তমানে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বিরোধীয় জমি ও মালিকানা জমির কোন ধরনের সীমা চিহ্ন নাই। বর্তমানে মাছ চাষের প্রক্রিয়াধীন আছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের একোয়ার ভুক্ত জমি জাবের মেম্বারের পৈত্রিক ও আত্বীয় স্বজনের মালিকানাধীন ছিল বর্তমানে ও দখলে আছে। জাবেরের মালিকানাধীন জায়গা পানি উন্নয়ন বোর্ডের রাজস্ব অফিসার নাছির উদ্দিন অতিলোভের বশভতি হয়ে মোটা অংকের টাকা নিয়ে জামায়াত শিবিরের দুধুর্ষ ক্যাডার বশির কে ১৫ ডিসেম্বর ১৪ ইং বেগ ডেইট দিয়ে ইজারার হিসাব দেখিয়েছে।

নিরুপায় হয়ে পরিশেষে এতদসত্বে ও দুর্নীতিবাজ সার্ভেয়ার নাছির উদ্দিন রাজাকার বশিরের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে আইনের প্রতি শ্রদ্ধা তো দুরের কথা বরং সরকারী নীতিমালা ও আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে জাবেরকে উচ্ছেদ করার পায়তাঁরা করেছে।

এ ব্যাপারে আওয়ামীলীগ নেতা ও ভোক্তভোগী জাফর আলম জাবের মেম্বার জানান, দুর্নীর্তিবাজ নাছির উদ্দিন আমার বৈধ কাগজপত্রকে অবৈধ করার চেষ্টা চালাচ্ছে। যদি এ রকম হয়ে থাকে আমার পৈত্রিক সম্পত্তি ও আত্বীয় স্বজনের প্রায় ১০ একর জায়গা নষ্ট ও ১ কোটি টাকা মত ক্ষতি সাধিত হতে পারে তাই আমি প্রশাসনের সার্বিক সহযোগীতা কামনা করছি।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments