দুই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর

অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার করা জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছে আদালত। রবিবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে বিচারক আবু আহমেদ জমাদারের নেতৃত্বে পুরনো ঢাকার বকশিবাজার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপতি অস্থায়ী বিশেষ জজ আদালত এই জামিন মঞ্জুর করে।

 

এর আগে আদাতে হাজির হওয়ার জন্য সকাল নয়টা ৫৫ মিনিটের দিকে গুলশান কার্যালয় থেকে রওনা হয়ে সাড়ে ১০টার দিকে আদালতে পৌঁছান খালেদা জিয়া। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন শিমুল বিশ্বাস, সেলিমা রহমান ও শিরিন সুলতানা।

 

খালেদা জিয়া আদালতে পৌঁছে দুটি মামলায় জামিন আবেদন করেন। তার পক্ষে আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া ও জয়নুল আবেদীন মেজবা আত্মসমর্পণপূর্বক জামিনের আবেদন করেন। একই সঙ্গে সলিমুল হক কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন।

 

এর আগে খালেদা জিয়ার হাজিরা ঘিরে সকাল থেকে আদালত ও এর আশপাশের এলাকায় বিপুলসংখ্যক নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়। বিচারক আবু আহমেদ জমাদারের নেতৃত্বে সকাল ১০টার দিকে এই বিশেষ জজ আদালতের কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানা গেছে।

 

ডিএমপির গুলশান জোনের সহকারী কমিশনার নুরুল আলম বলেছেন, খালেদা জিয়ার নিরাপত্তায় যেন কোনো রকম ঘাটতি না হয় সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখব আমরা। তিনি জানান, কার্যালয় থেকে বের হয়ে আদালতে যাওয়া পর্যন্ত তার নিরাপত্তা নিশ্চিতে সব ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

 

চলতি বছরের ৩ জানুয়ারি রাত থেকে গুলশান রাজনৈতিক কার্যালয়ে প্রথমে অবরুদ্ধ ও পরে স্বেচ্ছায় অবস্থান করে আসছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তিনি এখানে অবস্থানকালে বিদেশে তার বড় ছেলে আরাফাত রহমান কোকো মারা যান। তার মরদেহ এই কার্যালয়ে নিয়ে এসেই পরে দাফন করা হয়।

 

গত ৪ মার্চ খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য ৫ এপ্রিল দিন নির্ধারণ করে আদালত। ওইদিন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আদেশ বহাল রেখে এই দিন দেন বিচারক আবু আহমেদ জমাদার।

 

প্রসঙ্গত, ঢাকার বকশিবাজারে আলিয়া মাদ্রাসা সংলগ্ন মাঠে স্থাপিত তৃতীয় বিশেষ জজ আদালতে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টে দুর্নীতির দুটি মামলার বিচারকাজ চলছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।