সোমবার, নভেম্বর 29, 2021
সোমবার, নভেম্বর 29, 2021
সোমবার, নভেম্বর 29, 2021
spot_img
Homeউপজেলামানুষ হত্যার জন্য বিএনপি নেত্রীকে জবাব দিতে হবে

মানুষ হত্যার জন্য বিএনপি নেত্রীকে জবাব দিতে হবে

গতকাল শনিবার বিকেলে  লাকসাম-চিনকি আস্তানা ডাবল লাইনে ট্রেন সার্ভিস ও চট্টগ্রাম স্টেশন ইয়ার্ড রিমডেলিং কাজের উদ্বোধন এবং লাকসাম-আখাউড়া ডুয়েল গেজ ডাবল রেললাইন নির্মাণ ও বিদ্যমান রেললাইনকে ডুয়েল গেজে রূপান্তর কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা ক্ষমতায় থাকলে দেশের উন্নয়ন করি বিএনপিজোট ক্ষমতায় গেলে দেশ ধ্বংস করে। তারা  এ দেশের মানুষের কল্যান চায়না।

 

শুধু মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করা, অত্যাচার করা আর দেশের সম্পদ ধ্বংস করাই যেন তাদের কাজ। হরতাল অবরোধের নামে তারা রেলের নতুন নুতন বগি ইঞ্জিন জ্বালিয়ে, রেল লাইন উৎপাটন করে রেলের কোটি কোটি টাকার ক্ষতি করেছে। জাতির জনককে স্বপরিবারে হত্যার পর ২১ বছরে দেশকে অনেক পিছিয়ে নিয়ে গেছে। দেশের উন্নয়ন না করে জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাস সৃষ্টি করেছিল। মুক্তিযোদ্ধদের হত্যা করেছিল। বিদেশে সম্পদের পাহাড় গড়েছিল।

 

আমরা পাচার হওয়া সে অর্থ ফিরিয়ে এনেছি। তিনি বিএনপি নেত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ৯২ দিনে হরতাল অবরোধের নামে জ্বালাও পোড়াও করে আর মানুষ পুড়িয়ে মেরে দেশের সম্পদ ধ্বংস করেছেন। এতে দেশের কি লাভ হয়েছে, তিনি কি পেয়েছেন ? অবশেষে ব্যর্থ হয়ে তিনি আদালতেও হাজিরা দিলেন, বাসায়ও ফিরলেন। এতো মানুষ হত্যা আর সম্পদ ধ্বংসের জন্য তাকে জনগনের কাছে জবাব দিতে হবে।

 
বিকেল ৫টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের লাকসাম হতে চিনকি আস্তানা পর্যন্ত ৬১ কিলোমিটার ডাবল রেললাইনে ট্রেন সার্ভিসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন, লাকসাম-আখাউড়া ৭১ কিলোমিটার ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন নির্মানের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও চট্টগ্রাম ষ্টেশন রিমডেলিং কাজের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী রেলওয়ের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কথা তুলে ধরে বলেন, আমরা ক্ষমতায় এসে রেলকে আলাদা মন্ত্রনালয় করে দিয়েছি।

 

রেলের উন্নয়নে হাজার হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছি। তারা ক্ষমতায় থাকাকালে রেলকে বন্ধ করে দিতে চেয়েছিল। তারা মেধাবী ও দক্ষ শ্রমিকদের গোল্ডেন হ্যান্ডশেকের নামে ছাঁটাই করেছে। আমরা ক্ষমতায় এসে তা ঠেকিয়েছি। নতুন নতুন রেললাইন নির্মাণ, ইঞ্জিন-বগি যুক্তসহ রেলওয়েকে আধুনিকায়ন করেছি।

 
লাকসাম রেলওয়ে জংশনে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, পরিল্পনামন্ত্রী আ.হ.ম মোস্তফা কামাল, রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক, স্থানীয় সংসদ সদস্য মোঃ তাজুল ইসলাম, রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাপরিচালক মোঃ আমজাদ হোসেন, রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের জেনারেল ম্যানেজার মোজাম্মেল হক, কুমিল্লা জেলা পরিষদের প্রশাসক আলহাজ ওমর ফারুক, কুমিল্লা জেলা প্রশাসক হাসানুজ্জামান কল্লোল, পুলিশ সুপার টুটুল চক্রবর্তী, ডাবল লাইন প্রকল্পের জাইকা প্রতিনিধি তাকাসিয়া বাচু, রেলওয়ে শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শেখ লোকমান হোসেন, লাকসাম উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট মোঃ ইউনুছ ভূইয়া, ভাইস চেয়ারম্যান মহব্বত আলী।

 
প্রধানমন্ত্রী জনগনের উদ্দেশ্যে বলেন, বিএনপি নেত্রী রাস্তায় নামলে তাকে জিজ্ঞেস করবেন, তিনি কেন হরতাল অবরোধ করে দেশেল মানুষকে পুড়িয়ে মেরেছেন আর দেশের সম্পদ ধ্বংস করেছেন। প্রায় ৪০ মিনিট বক্তব্য শেষে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান মন্ত্রী ওই প্রকল্প সমূহ উদ্বেধনের ঘোষনা দেন। পরে অতিথিদের নিয়ে একটি যাত্রীবাহী ডেম্যু ট্রেন নতুন লাইন দিয়ে লাকসাম থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্য যাত্রা করে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments