বাংলাদেশের গণতন্ত্র এখন নির্বাসিত: খালেদা

বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, বাংলাদেশে এখন গণতন্ত্র নির্বাসিত। গণতান্ত্রিক প্রথা ও প্রতিষ্ঠানগুলো সব ধ্বংস করে ফেলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তিনি গণমাধ্যমে পাঠানো মহান মে দিবসের এক বিবৃতিতে একথা বলেন।

 

খালেদা জিয়া বলেন, ‘এদেশে কোনো শ্রেণী-পেশার মানুষের অধিকার আজ আর নিশ্চিত নয়। এই অবস্থার অবসানে সাম্য ও সামাজিক ন্যায়বিচারভিত্তিক গণতান্ত্রিক সমাজ প্রতিষ্ঠা জরুরি।’

 

তিনি সেই সমাজ প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে অংশ নেওয়ার জন্য মহান মে দিবসে দেশের শ্রমজীবী ভাই-বোনদের প্রতি আহবান জানান। বিবৃতিতে বিএনপি চেয়ারপারসন মহান মে দিবসে দেশ-বিদেশে কর্মরত সকল বাংলাদেশি শ্রমিক-কর্মচারী এবং বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল শ্রমজীবী খেটে খাওয়া মানুষকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

 

তিনি মে দিবসে রানা প্লাজা ও তাজরীন ফ্যাশনে শোচনীয়ভাবে নিহতদের কথাও গভীর বেদনার সঙ্গে স্মরণ করেন। খালেদা জিয়া বলেন, শ্রমজীবী মানুষের রক্তঝরা ঘামেই বিশ্ব সভ্যতার বিকাশ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির নতুন দিগন্ত উম্মোচিত হয়। তাদের অবদানের ফলেই বিশ্ব অর্থনীতি চাঙ্গা হয়। অথচ গভীর পরিতাপের বিষয় আজও বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে নিপীড়িত শ্রমিকরা তাদের ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়।

 

তিনি বলেন, বিএনপি শ্রমিকদের ন্যায্য দাবির প্রতি সম্মান ও শ্রমের মর্যাদা সম্পর্কে সব সময় ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে। শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায় এবং তা রক্ষায় আমরা আমাদের প্রতিশ্রুতি পালনে কখেনোই পিছপা হইনি। শ্রমজীবী মানুষের সার্বিক কল্যাণে এই প্রচেষ্টা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।