রবিবার, অক্টোবর 24, 2021
রবিবার, অক্টোবর 24, 2021
রবিবার, অক্টোবর 24, 2021
spot_img
Homeউপজেলাকুমিল্লায় চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ির বাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলা ॥ ৩০ লাখ টাকার...

কুমিল্লায় চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ির বাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলা ॥ ৩০ লাখ টাকার মালামাল লুট

কুমিল্লা মহানগরীর চৌয়ারা মিয়াজী বাড়ীতে স্থানীয় সন্ত্রাসীদের হামলায় এক ব্যবসায়ীর বাড়ীতে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট হয়েছে। জানা যায়, রোববার রাতে স্থানীয় সন্ত্রাসী হাসান, রেজাউল এর নেতৃত্বে ৩০/৩৫ জনের একদল সন্ত্রাসী ব্যবসায়ী অহিদুর রহমানের কাছে চাদাঁ চেয়ে ব্যর্থ হয়ে তার বাড়ী-ঘরে ব্যাপক ভাংচুর ও লুট করা হয়।

 

এসময় সন্ত্রাসী হাসান ও রেজাউলসহ তার দলবল ঐ বাড়ীর মুল ফটকের তালা ভেঙ্গে নগদ ৪ লাখ ৪৫ হাজার টাকা, ২২ ভরি সোনা, একটি মটর সাইকেল কুমিল্লা- ল- ১১- ৫০৫৩, নিয়ে যায়। এ সময় বাড়ী-ঘরের ভেতরে থাকা মুল্যবান জিনিস পত্র, ২ টি এসি, জানালার থাই গ্লাস ভেঙ্গে ফেলে কয়েক রাউন্ড ফাকাঁ গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায়।

 

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী অহিদুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যরা জানান, এতে তাদের প্রায় অর্ধকোটি টাকা মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী অহিদুর রহমানের চৌয়ারা বাজারে হালিমা এন্টার প্রাইজ নামে রড, সিমেন্ট দোকান রয়েছে।

 

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী অহিদুর রহমান দাবী করেন, কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার স্থানীয় রায়পুর গ্রামের আনু মিয়ার পুত্র সন্ত্রাসী হাসান, একই গ্রামের রউফ মিয়ার পুত্র শহিদুল ইসলাম, কালীকিংকরপুর গ্রামের কালাম মিয়ার পুত্র কাউছার, শামবক্শী গ্রামের রেজাউল, গোয়ালমাতন গ্রামের ওসমান আলীর পুত্র তুষার এর নেতৃত্বে ৩০/৩৫ জনের একদল সন্ত্রাসী তার কাছে ২ লাখ টাকা এবং আরো কয়েকজন ব্যবসায়ীর নিকট মোটা অংকের চাঁদা দাবীসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়।

 

চাঁদাবাজদের গ্রেফতার ও হামলার প্রতিবাদে চৌয়ারা বাজারের ব্যবসায়ীরা হালিমা এন্টারপ্রাইজের সত্ত্বাধিকারী অহিদুর রহমানের নেতৃত্বে চৌয়ারা বাজারে মানববন্ধন করেন। এই মানববন্ধন কর্মসুচী পালনের পর থেকে গত এক মাস যাবৎ স্থানীয় সন্ত্রাসী হাসান, শহিদুল ইসলাম, কাউছার, রেজাউল, তুষার ব্যবসায়ী অহিদুর রহমানের কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদার জন্য বিভিন্ন সময় নানা ভাবে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছে।
এদিকে সন্ত্রাসীরা তাদের দাবীকৃত চাঁদা না পেয়ে গত ৩১ মে রোববার  রাত সাড়ে ১০ টায় অহিদুর রহমানের বাড়ী-ঘরে ব্যাপক লুটপাট ও ভাংচুর করা হয়। তিনি জানান,  রোববার বিকালে জরুরী প্রয়োজনে ব্যবসায়ী অহিদুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যরা বাড়ী তালাবদ্ধ করে শুশুর বাড়ী পার্শবর্তী নোয়াগ্রাম যায়।

 

রাতে পার্শ্ববাড়ীর লোকজনের মাধ্যমে খবর পেয়ে বাড়ীতে এসে দেখেন, বাড়ীর মুল ফটকের তালা ভেঙ্গে সন্ত্রাসীরা ঘরের আলমারীতে থাকা নগদ ৪ লাখ ৪৫ হাজার টাকা, ২২ ভরি সোনা, একটি মটর সাইকেল কুমিল্লা-ল-১১-৫০৫৩, নিয়ে যায় এবং ঘরের ভেতরে থাকা মুল্যবান জিনিস পত্র, ২ টি এসি, জানালার থাই গ্লাস ভেঙ্গে ফেলে।

 

এ বিষয়টি কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানাকে অবহিত করলেও দীর্ঘ ১৪ ঘন্টা সময় অতিবাহিত হলেও পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেনি বলে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী অহিদুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ। এ অবস্থায় সন্ত্রাসীদের ভয়ে তার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখাসহ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার বর্তমানে চরম নিরাপত্তা হীনতায় রয়েছে।
এ বিষয়ে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর খলিলুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, এটা স্থানীয় আ’লীগের দীর্ঘদিনের আভন্তরিন অন্ত: কোন্দল। চৌয়ারা বাজারে মাদ্রাসার ওর্য়াকফ সম্পত্তি জায়গায় দোকান ভিটি’র ভাড়া ও হিসাব সংক্রান্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে বেশ কিছুদিন পূর্বে চৌয়ারা বাজারে দোকান-পাটে হামলা ও ভাংচুর করা হয়েছে।

 

এ ঘটনায় স্থানীয় ব্যবসায়ীরা মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে দোকান-পাটে হামলা ও ভাংচুরে জড়িতদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবী জানানো হয়। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্যি এ ঘটনার এ পর্যন্ত কারো বিরুদ্ধে প্রশাসন কোন প্রকার ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারেনি।

 

অভিযুক্ত হাসান জানান, ব্যবসায়ী অহিদুর রহমানের হামলার ঘটনায় আমি জড়িত নই। এরা পরিকল্পিতভাবে নিজ গৃহে হামলা ও ভাংচুর করেছে। এটা একটি সাজানো নাটক। এ বিষয়ে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রশান্ত কুমার পাল এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে।

 

বর্তমানে এলাকার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এ প্রসঙ্গে কুমিল্লা পুলিশ সুপার মোঃ শাহ আবিদ হোসেন, বাড়ী-ঘর ও ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে সন্ত্রাসী হামলায় জড়িতদের গ্রেফতারে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments