মঙ্গলবার, জানুয়ারী 25, 2022
মঙ্গলবার, জানুয়ারী 25, 2022
মঙ্গলবার, জানুয়ারী 25, 2022
spot_img
Homeরায়পুররায়পুরে চার ভাইয়ের প্রতারণা ও নির্যাতনে বাড়ি ছাড়া দুই ভাই

রায়পুরে চার ভাইয়ের প্রতারণা ও নির্যাতনে বাড়ি ছাড়া দুই ভাই

মা-বাবা ও দুই ভাইয়ের সাথে চার ভাইয়ের প্রতারণা, জমি আত্মাসাত, বাড়ি থেকে বিতাড়িতসহ নির্যাতনের ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় চলছে। নিজ সম্পত্তি থেকে শুধু বিতাড়িত নয় এখন আবার তাদেরকে ক্রয়কৃত সম্পত্তি থেকেও উচ্ছেদের পায়তারা চলছে বলে ক্ষতিগ্রস্তদের অভিযোগ। দীর্ঘদিন জনপ্রতিনিধি, আত্মীয়-স্বজন ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা প্রচেষ্টা চালিয়েও ওই ঘটনার কোনো সুরাহা করতে পারেননি।

 

ঘটনাটি ঘটেছে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার হায়দরগঞ্জ বাজারের পন্ডিত আলী মোল্লা বাড়ীতে এ নিয়ে তাদের মধ্যে দফায় দফায় বাগ-বিতন্ডা ও শালিসী বৈঠকেরও আয়োজন হয়। কিন্তু এক ভাই থাকলে, অন্য ভাই জমির মাপার সময় না থাকায় বিষয়টি আজো কোনো সমাধান হচ্ছে না। ক্ষতিগ্রস্তরা হলেন মৃত পন্ডিত আলী মোল্লার ছেলে মুসলিম মোল্লা ও তছলিম উদ্দিন মোল্লা এবং আত্মসাতকারী হিসেবে অভিযুক্ত ৪ ভাই হলেন তোফায়েল মোল্লা, আবুল কালাম মোল্লা, দুলাল মোল্লা, সিরাজ মোল্লা।

 

ক্ষতিগ্রস্ত মুসলিম মোল্লা ও তাঁর পুত্র মো. ফারুক মোল্লা জানান, পন্ডিত আলী মোল্লার ছয় ছেলে ও ৩ মেয়ে। এরা হলেন তছলিম উদ্দিন মোল্লা, মুসলিম মোল্লা, আবুল কালাম মোল্লা, তোফায়েল মোল্লা, মৃত দুলাল মোল্লা ও সিরাজ মোল্লা। মুসলিম ও তছলিমের অনুপস্থিতির সুযোগে অন্য চার ভাই তোফায়েল, কালাম, দুলাল, সিরাজ তাদের পিতাকে প্রতারিত করে সব পৈত্রিক জমি তাদের নামে লিখে নেন। মুসলিম মোল্লা ও তছলিমকে জমি দিতে অস্বীকৃতি জানায় ওই ভাইরা। নিরুপায় মুসলিম বোনদের সম্পত্তি ক্রয় করে বসবাস করছেন।

 

ওই সম্পত্তিও এখন গ্রাস করার জন্য তোফায়েল ওঠেপড়ে লেগেছে। ২.৮১ শতাংশ জমির মালিক হন তাদের মা ফয়জরনেছা। সেই মায়ের সাথেও তারা ৩ ভাই প্রতারণা করে নিজেদের নামে জমি লিখে নেন। দুলালের মৃত্যুর পর তোফায়েল তার সম্পত্তিও দখল করে। দুলালের দুই ছেলে ও এক মেয়ে থাকলেও তাদেরকে কোনো জমি দেয়া হয়নি। দুলালের নির্মিত ৫টি দোকানও তারা দখল করে নিয়েছে। সোমবার তোফায়েলের লোকজন মুসলিম মোল্লার ছেলে ফারুকের ভবনের পিছনে ওয়াল ঘেষে খুঁটি গেড়ে জবরদখলের চেষ্টা চালায়।

 

ওই সময় মুসলিম পরিবার ও বাধা দিলে জবর দখল ব্যহত হয়। তোফায়েলের পুত্রবধূ নিশি আক্তারের কয়েকজন আত্মীয়-স্বজন বাড়িতে গিয়ে মহড়া ও হুমকি  দেয়। ওই সময় এমপি বাজারের এক ছেলে ও নিশি আক্তার তাদের ঘরের বেড়াগুলো টেনে হেছড়ে ও কুপিয়ে ভাংচুর করে চিৎকার দেয়। শুধু তাই নয় তারা তাদের শরীরে কাটা ছেড়ার কৃত্রিম দাগ দেখিয়ে হাসপাতালে গিয়ে সার্টিফিকেট এনে মিথ্যা নারী নির্যাতন মামলা সাজিয়ে হয়রানির পায়তারা করছে।

 

হায়দরগঞ্জ বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী দুলাল হাওলাদার, বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও ব্যবসায়ী সাইজ উদ্দিন মোল্লা বলেন, মুসলিম ও তোফায়েলের ঘটনা নিয়ে একাধিকবার শালিসী বৈঠক করা হয়েছে। কিন্তু তোফায়েল এককভাবে বাড়ির পুরো সম্পত্তি নিজের দাবি করে ভোগ দখল করায় তা সমাধান করা যায়নি। একাধিকবার মাপের উদ্যোগ নেয়া হলেও তোফায়েলের অসহযোগিতায় সঠিকভাবে জমির সীমানা নির্ধারণ করা সম্ভব হয়নি।

 

অভিযোগের বিষয়ে তোফায়েল মোল্লা বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সঠিক নয়। পিতা-মাতা সন্তুষ্ট হয়ে আমাদের নামে জমি সাফ কবলা করে দেয়ায় আমরা আমাদের জমির মালিক হয়েছি। কাউকে মিথ্যা অভিযোগে হয়রানির অভিযোগ মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক।

 

হায়দরগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, তোফায়েলদের অভিযোগটি আদালতের আদেশে তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষে প্রকৃত সত্য বেরিয়ে আসবে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments