শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
শনিবার, অক্টোবর 16, 2021
spot_img
Homeফেনীসোনাগাজীতে সংখ্যালঘুর বাড়ি থেকে গাছ লুট, যুবলীগের হামলায় আহত ৩

সোনাগাজীতে সংখ্যালঘুর বাড়ি থেকে গাছ লুট, যুবলীগের হামলায় আহত ৩

সোনাগাজী উপজেলার চরদরবেশ ইউনিয়নের সেনেরখিল গ্রামের পাল বাড়ি থেকে রবিবার দুপুরে লক্ষাধিক টাকার গাছ কেটে নিয়ে গেছে যুবলীগ নেতাকর্মীরা। এ সময় সন্ত্রাসীদের হামলায় গৃহকর্তা সহ তিন জন আহত হয়েছে।

 

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, সেনেরখিল গ্রামের খোকন পালের বাড়ির বিমল পাল, হিরা পাল, নিমল পাল, ও নারায়ন পালের নিজ মালিকীয় জায়গা থেকে প্রকাশ্যে দিবালোকে স্থানীয় যুবলীগ নেতা বাবুলের নেতৃত্বে শুক্কুর, বাচ্চু সহ বেশ কয়েকজন রবিবার পাল বাড়িতে হানা দিয়ে ৩টি বড় আম, ১টি বড় করই গাছ ও বেশ কয়েকটি গাব গাছ কেটে নিয়ে যায়। যার মূল্য লক্ষাধিক টাকা।

 

এ সময় বাড়ির লোকজন গাছ কাটতে বাধা দিতে চাইলে সন্ত্রাসীদের হামলায় অনিকা রাণী পাল, হরি পাল, ও পথচারি রিয়াদ আহত হয়। আহতরা স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা নিয়েছে। সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের মহড়ার ভয়ে পালবাড়ির লোকজন ঘটনাস্থল থেকে সরে পড়ে। এমন কি গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার সময় সন্ত্রাসীরা পাল বাড়ির লোকদেরকে বিষয়টি নিয়ে থানা-পুলিশ সহ অন্য কোথাও না জানানোর হুমকি প্রদান করে। অন্যথায় বাড়ি থেকে উচ্ছেদ সহ হত্যা করার হুমকিও দেয় সন্ত্রাসীরা। পাল বাড়ির লোকদের সাথে আলাপ কালে তারাএলাকায় সন্ত্রাসীদের অত্যাচার নির্যাতনের করুণ চিত্র সংবাদ কর্মীদের সামনে তুলে ধরেন।

 

তারা জানান, পুরো বাড়িতে বিপুল পরমাণ ফলফলাদি গাছ সহ বিভিণœ ধরণের গাছ রয়েছে। যার একটি ফলও তারা খেতে পারে না।

 

এছাড়াও স্থানীয় সন্ত্রাসীরা পুকুর থেকে মাছ, বাগান থেকে বাঁশ কেটে পাটি পাতা বাগান থেকে পাটি পাতা সহ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরণের গাছ কেটে নিয়ে যায়। আমরা কাউকে জানিয়েও এর প্রতিকার পাইনা। আমরা স্থানীয় এ সব সন্ত্রাসীদের হাতে জিম্মি হয়ে জীবন-যাপন করছি। সন্তোষ পালের স্ত্রী অনিমা রাণী কান্নাজড়িত কণ্ঠে জানায়, এত ফলফলাদি গাছ লাগিয়েও আমরা ভোগ করতে পারছি না।

 

আমাদের সামনে সন্ত্রাসীরা তাদের খুশি মত যে কোন গাছ কেটে নিয়ে যায়। প্রতিবাদ করতে পারি না। আমাদের চলাচলের পথ কেটে তারা জমি বানিয়ে রেখেছে। এখন অনেক কষ্টে একটি সুরু পথ দিয়ে আমরা যাতায়াত করছি। এলাকার চেয়ারম্যান-মেম্বার কারো কাছে গিয়ে কোন প্রকার প্রতিকার পাইনি। একই বাড়ির ঈশ্বর চন্দ্র পাল জানান, আমাদের উপর যে নির্যাতন করা হচ্ছে তা ভাষায় প্রকাশ করার মত নয়। বহু কষ্টে বসবাস করছি।সন্ত্রাসীদের নির্যাতনের কারণে এ বাড়ি থেকে বেশ কয়েকটি পরিবার অন্যত্র চলে গেছে।

 

গাছ কাটার বিষয়টি সম্পর্কে থানা পুলিশকে না জানানোর বিষয়ের জানতে চাইলে বাড়ির লোকজন জানায় দিনে থানায় গেলে তারা রাতে এসে যদি আমাদের বাড়ি ঘরে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয়, তখন আমাদেরকে কে বাঁচাবে। আমরা তাই তাদের অব্যাহত হুমকির ভয়ে থানায় বিষয়টি জানাইনি। চরম আতংক ও উৎকণ্ঠার মধ্যে আমরা জীবন যাপন করছি। এ বিষয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের বিভিন্ন সংগঠনের  নেতারাও মুখ খুলতে রাজি হননি।

 

এ ব্যাপারে সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হুমায়ুন কবির জানান, বিষয়টি তিনি শুনেছেন, লিখিত অভিযোগ পেলে দোষিদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে আইনত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments