শুক্রবার, অক্টোবর 22, 2021
শুক্রবার, অক্টোবর 22, 2021
শুক্রবার, অক্টোবর 22, 2021
spot_img
Homeকক্সবাজারহোয়াইক্যংয়ে গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে পরস্পর বিরোধি বক্তব্য

হোয়াইক্যংয়ে গৃহবধুর রহস্যজনক মৃত্যু নিয়ে পরস্পর বিরোধি বক্তব্য

টেকনাফের হোয়াইক্যংয়ে এক গৃহ বধু কে গলা টিপে হত্যা করেেেছ বলে খবর পাওয়া গেছে। নিহত গৃহ বধুর নাম সালমা আক্তার(২১)। সে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা পশ্চিম সিকদারপাড়া এলাকার কবির ড্রাইভারের মেয়ে ও আলী আহমদ ওরফে কালা মিয়ার স্ত্রী। খবর পেয়ে হোয়াইক্যং পুলিশের এস.আই আরিফুল ইসলাম সঙ্গিয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল সরেজমিনে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেছে।

 

এলাকাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শিরা জানায়, বিগত ২০১৪ সালের শেষের দিকে হ্নীলা পশ্চিম সিকদারপাড়া এলাকার কবির ড্রাইভারের মেয়ে সালমার সাথে হোয়াইক্যং বালুখালী এলাকার আলী আহমদের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে ৪/৫ মাসের কন্যা সন্তান রয়েছে।

 

স্থানীয় সুত্র জানায়, বিয়ের পর থেকে প্রায় সময় শ্বশুর বাড়ীর লোকজন যৌতুক সহ নানা বিষয়ে সালমা উপর নানাভাবে নির্যাতন চালাতো। ১৮জানুয়ারী সকাল সাড়ে ৬টার দিকে পাষান্ড স্বামীর কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে গলা টিপে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে নিহত সালমা মৃত্যুরকূলে ঢুলে পড়ে। তখন স্বামী বাচায় উপায় হিসেবে তাদের কন্যা সন্তানের জন্য আনা দোলনার রশ্মি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে পালিয়ে যায়।

 

স্থানীয় আরেকটি সুত্র জানায়, স্বামীর  নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে হয়তোবা গলায় ফাঁস লাগিয়েছে। এদিকে নিহত সালমার শশুরপক্ষ গলায় ফাঁস লাগিয়ে সালমা আত্মহত্যা করেছে বলে দাবী করছে।

 

নিহতের পিতা কবির আহমদ ড্রাইভার,মাতা আনোয়ারা সাফ জানিয়েছেন, শ্বশুর পক্ষের মাত্রাতিরিক্ত নির্যাতনের কারণে আমার মেয়ে খুন হয়েছে।তবে সরেজমিনে গিয়ে একটি রশ্মি ছাড়া,ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ বা নাকে মুখের কোন নমুনা বা জিহবা বের হওয়ার কোন আলামত দেখা যায়নি।

 

হোয়াইক্যং ফাঁড়ির আইসি এসআই আরিফুল ইসলাম জানিয়েছেন, লাশের সুরতহাল করার পর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নেয়া হচ্ছে। হত্যা না আত্বহত্যা এখন স্পষ্ট করে বলা যাচ্ছেনা। ময়না তদন্তের পর বলা যাবে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments