মঙ্গলবার, অক্টোবর 26, 2021
মঙ্গলবার, অক্টোবর 26, 2021
মঙ্গলবার, অক্টোবর 26, 2021
spot_img
Homeকক্সবাজারকক্সবাজারের পিএমখালীতে গুলিবিদ্ধ যুবকের অবস্থা আশংকাজনক

কক্সবাজারের পিএমখালীতে গুলিবিদ্ধ যুবকের অবস্থা আশংকাজনক

কক্সবাজার সদর উপজেলা পিএমখালীতে স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গুলিতে গুলিবিদ্ধ হয়েছে এক যুবক। ১৯ জানুয়ারী রাত সাড়ে ১০টার দিকে পিএমখালীর ছয় ভাইয়ের এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনায় গুলিবিদ্ধ যুবক সিকদার পাড়া এলাকার মৃত হাজী কলিমুল্লাহ সিকদারের পুত্র সৌদি প্রবাসী নুরুদ্দীন জাসেদ (৩৪) বলে জানা যায়। স্থানীয়রা আহত অবস্থায় গুলিবিদ্ধ যুবককে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে।

 

প্রত্যেক্ষদর্শীরা জানান, ছয় ভাইয়ের পাড়া এলাকার মৃত ঈসমাইলের পুত্র ডাকাত লাল বাহাদুরের নেতৃত্বে স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ড্রাইভারসহ একটি সিএনজি গাড়ী অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে অপহরণকারীদের কাছ থেকে  সিএনজি ও ড্রাইভারকে ফেরত চাইলে সন্ত্রাসী কায়েস উদ্দিন আহত জাসেদকে লক্ষ করে গুলি করে, সাথে সাথে অপর ডাকাত লাল বাহাদুরও গুলি করে পালিয়ে যায়। এ সময় সৌদি প্রবাসী নুরুদ্দীন জাসেদ গুলিবিদ্ধ হয়।

 

প্রত্যক্ষদর্শীরা আরো জানান, স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীদের এ ঘটনা পূর্ব পরিকল্পিত হতে পারে। তারা আশংকা করছেন পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ ঘটনা ঘটতে পারে।

 

স্থানীয়রা জানান, ডাকাত লাল বাহাদুর, কায়েস ও লিটনের নেতৃত্বে রয়েছে একটি শক্তিশালী স্বশস্ত্র বাহিনী। এ বাহিনী পিএমখালীসহ শহরের বিভিন্ন স্থানে প্রতিদিন চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, অপহরণসহ নানা অপকর্ম করে আসছে। ডাকাত লাল বাহাদুর ও কায়েস উদ্দিনের নেতৃত্বে অস্ত্র মহড়ায় এলাকায় আদিপাত্য বিস্তার করে আসছে এ বাহিনী। তারা প্রত্যেকেই বহু মামলার সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী।

 

সম্প্রতি সময়ে এ বাহিনী এলাকায় আদিপাত্য বিস্তার করে আইন শৃংখলা পরিস্থিতির চরম অবনতি সৃষ্টি করেছে। সদর উপজেলার দুর্গোম পাহাড়ী এলাকা হওয়ায় সহজে এ বাহিনী নানা অপকর্ম করে পার পেয়ে যাচ্ছে। স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে তারা পাহাড়ের গহিণ অরণ্যে আশ্রয় নিচ্ছে। ফলে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে রীতিমত হিমশিম খাচ্ছে।

 

সূত্রে জানা যায়, পিএমখালী এলাকায় প্রতিদিন প্রতিনিয়ত খুন, ডাকাতি, ছিনতাইয়ের মত জঘন্য অপরাধমূলক কর্মকান্ড ঘটিয়ে আসছে এ বাহিনী। এ বাহিনী নিয়ন্ত্রণে রয়েছে স্থানীয় আবুল কালামের পুত্র রেজাউল করিম প্রকাশ রেজা। উক্ত রেজা সৌদি প্রবাসী বলে জানা যায়। প্রতিবছর রেজাউল করিম রেজা প্রবাস থেকে মিশন নিয়ে হত্যাকান্ড ঘটাতে দেশে আসেন।

 

নাম প্রকাশ না করে শর্তে এলাকার কিছু লোক জানান, গতবছর রেজার ইন্দনে খুন হন স্থানীয় হানিফ সিকদারের পুত্র আয়াছ উদ্দিন প্রকাশ সারাদিন নামের এক যুবক। মিশন শেষ করে সে গোপনে বিদেশ পাড়ি জমায়। তারই ধারাবাহিকতায় ফের মিশন নিয়ে দেশে আসেন। তবে এ ঘটনায় তার হুকুম রয়েছে বলে ধারণা প্রত্যক্ষদর্শীদের। কারণ ঘটনার আগ মুহৃর্তে রেজা ও তার সাঙ্গ-পাঙ্গরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিল। একটু পরেই নিরহ যুবক জাসেদ গুলিবিদ্ধ হওয়ায় স্থানীয়দের মাঝে কৌতুহল সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনার রেজার ইন্দনে আদিপাত্য বিস্তারের কারণ হতে পারে।

 

এদিকে আহত যুবক নুরুদ্দীন জাসেদের ভাই জানান, আমার ভাই একজন প্রবাসী। সে কক্সবাজার শহরের থাকে। সন্ধ্যার দিকে আমার বাড়িতে বেড়াতে আসে। যাওয়ার পথে সাঙ্গবদ্ধ স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা আমার ভাইকে লক্ষ করে গুলি করে। আহত অবস্থায় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে এলাকাবাসী আমাদেরকে খবর দিলে আমরা দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে আসি। বর্তমানে আমার ভাইয়ের অবস্থা আশংকাজনক। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

 

এ ব্যাপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মাঈন উদ্দিন জানান, চিহ্নিত স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা জাসেদকে গুলি করে পালিয়ে যায়। স্থানীয় ও পুলিশ গুলিবিদ্ধ যুবককে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। তবে এ ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

 

এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর মডেথ থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোঃ আসলাম হোসেন জানান, ঘটনার বিষয়ে আমি অবগত রয়েছি এবং ঘটনাস্থলে পুলিশ পাটিয়েছি। তবে এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ দায়ের করেন নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তার পরেও সন্ত্রাসীদের ধরতে পুলিশ অবিযান অব্যাহত রয়েছে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments