শুক্রবার, জানুয়ারী 21, 2022
শুক্রবার, জানুয়ারী 21, 2022
শুক্রবার, জানুয়ারী 21, 2022
spot_img
Homeকুমিল্লাদেবিদ্বারে শ্বশুরের বিরুদ্ধে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগ! সাত মাসের অন্তসত্বা

দেবিদ্বারে শ্বশুরের বিরুদ্ধে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষনের অভিযোগ! সাত মাসের অন্তসত্বা

কুমিল্লায় এক প্রবাসির স্ত্রী উকিল শ্বশুরের লালসার শিকার হয়ে সাত মাসের অন্তসত্বা ! বিষয়টি জানাজানি হলে একটি প্রভাবশালী মহল রফাদফার মাধ্যমে ঘটনা দামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করছে।

ঘটনাটি ঘটেছে জেলার দেবিদ্বার উপজেলার বরকামতা এলাকায়।

প্রবাসীর স্ত্রী মিতার (ছদ্ম নাম) সাথে কথা বলে জানা যায়, জেলার দেবিদ্বার উপজেলার বরকামতা এলাকার স্বর্ণকার বাড়ির তোতামিয়ার ছেলে আফজাল হোসেনের সাথে প্রায় ৪ বছর পূর্বে ইসলামী শরীয়া মতে দু’পরিবারের সম্মতিতে তার বিয়ে হয়।

তিনি পাশ্ববর্তী  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার হাউর গ্রামের জাকির হোসেনের মেয়ে। বিয়ের অল্পকিছু সময় পর জীবিকার তাগিতে আফজাল সৌদি আরবে পাড়ি জমায়। গত প্রায় সাড়ে তিন বছর যাবৎ তার স্বামী প্রবাসে অবস্থান করছে। স্বামীর অনুপস্থিতির সুযোগে মিতার উপর চোখ পড়ে তার উকিল শ্বশুর ও স্বামী আফজাল হোসেনের  চাচা ৪ সন্তানের জনক সফিকুর রহমানের।

প্রায় সাত মাস আগে নিজ ঘরে রাতের আধারে সফিক মিতাকে ধর্ষন করে। এরই মাঝে অন্তসত্বা হয়ে শারিরিক পরিবর্তন আসে গৃহবধূ মিতার। ঘটনাটি জানাজানি হলে চলতি মাসে প্রবাস থেকে দেশে ফিরেন মিতার স্বামী আফজাল হোসেন।

এদিকে নিজেকে আড়াল করতে সফিক আশ্রয় নেয় স্থানীয় কিছু টাউট-বাটপারের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সুত্র সাংবাদিকদের জানায়, ওই টাউট-বাটপাররা ধর্ষক সফিকের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা নিয়ে গোপনে ধর্ষিতার স্বামীসহ তার বাবার উপর প্রভাব খাটিয়ে গোপনে সমঝোতার চেষ্টা করে।

সুত্র সাংবাদিকদের আরো জানায়, ধর্ষিতা বর্তমানে তার স্বামী গৃহে বসবাস করছেন। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর ধর্ষক দেশে থাকলেও গাঁঢাকা দিয়েছেন। বিভিন্নভাবে তার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলেও কেউ তার অবস্থান নিশ্চিত করেননি।

তবে তার ছোট ছেলে সজীব সাংবাদিকদের জানান, তার বাবা দেশে আছে। তবে তারা কোন খোঁজখবর পাচ্ছেননা। স্থানীয় সুত্র জানায়, ধর্ষক সফিকের ২ ছেলে ২ মেয়ে। বড় ছেলে দুবাই প্রবাসী। ছোট ছেলে কলেজে পড়ে। এছাড়াও বড় মেয়ে বিবাহিত ও ছোট মেয়ে স্থানীয় একটি স্কুলের সপ্তম শ্রেনীর ছাত্রী।

উল্লেখ্য আফজাল হোসেন ও চাচা সফিকুর রহমান একই সাথে সৌদি আরব কর্মরত ছিল।

 

গত বছরের দিকে চাচা সফিক দেশে ছুটিতে আসে। এরই মাঝে চাচা সফিকের কু-দৃষ্টি পরে ভাতিজা বৌ মিতার উপর। এক পর্যায়ে বর্তমানে ৭ মাসের অন্তসত্বা হয়ে পড়ে। এদিকে বিষয়টি নিয়ে সংবাদ সংগ্রহে বরকামতা গ্রামে গেলে ধর্ষকের পক্ষে থাকা ওই গ্রামের স্বর্নকার সিদ্দিক বলেন, কারো কোন অভিযোগ না থাকলে আপনারা সংবাদ সংগ্রহে এত ইন্টারেষ্ট কেন?

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments