বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 20, 2022
বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 20, 2022
বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 20, 2022
spot_img
Homeকুমিল্লাকুমিল্লায় স্বামীকে মা’রধর করে স্ত্রীকে গণধ’র্ষণ!

কুমিল্লায় স্বামীকে মা’রধর করে স্ত্রীকে গণধ’র্ষণ!

কুমিল্লার ব্রা’হ্মণপাড়া উপজেলার শশীদল রেল ষ্টেশন থেকে স্বামী ও স্ত্রীকে জো’রপূর্বক ধরে নিয়ে স্বামীকে মা’রধর করে স্ত্রীকে ধ’র্ষণের অ’ভিযোগ উঠে। ঘটনাটি গত ২১ ডিসেম্বর শনিবার রাত সাড়ে ৮টার সময় শশীদল রেল ষ্টেশনের পশ্চিম পাশ্বের এলাকায় ঘটে। এঘটনায় থা’না পুলিশ অ’ভিযান চালিয়ে ধ’র্ষকসহ অ’ভিযুক্ত ৫ জনকে আ’টক করেছে থা’না পুলিশ।


এ ব্যাপারে ধ’র্ষিতার স্বামী ব্রা’হ্মণবাড়ীয়া জেলার আখাউড়া উপজেলার সদর এলাকার কাউসার মিয়া জানান, আমি ও আমার স্ত্রী গত শনিবার সন্ধ্যায় আখাউড়া থেকে কুমিল্লা জেলার ব্রা’হ্মণপাড়া উপজেলার নাল্লা গ্রামে শ্বশুড় বাড়ীতে যাওয়ার উদ্দোশে রওয়ানা দিয়ে রেল গাড়িতে করে শশীদল রেল ষ্টেশনে রাত ৮ টার সময় পৌছাই। রেল থেকে নেমে আমরা চা খাওয়ার জন্য শশীদল ষ্টেশনের নাসির মিয়ার চা দোকানে গিয়ে কিছু সময় বসি এবং চা পান করি। এসময় নাসির মিয়া আমাদের সাথে বিভিন্ন বিষয়ে জানতে চেয়ে কথা বলে।


এক পর্যায়ে চা দোকানের মালিক নাসির মিয়া আমাদের বলেন, এখন রাত্র অনেক হয়েছে, আপনার শ্বশুর বাড়ী নাল্লা এলাকায় যাওয়ার জন্য কোন গাড়ি পাবেন না। তার চেয়ে বরং আপনারা আজ রাতে আমার বাড়ীতে থেকে সকালে উঠে নাল্লায় চলে যাইয়েন। এই বলে সে আমাদের বিভিন্ন ভাবে ফুসলিয়ে তার বাড়ীতে নিয়ে যায়।


তার বাড়ীতে নিয়ে আমাদের চা নাস্তা খাওয়াইয়া আমাদের বলে, এখন আমার স্ত্রী ঘুমাবে, সে ঘুমিয়ে যাওয়ার পর তোমরা এসে ঘুমাইও। পরিস্থিতি অনুকূলে না দেখে আমরা এক পর্যায়ে বাড়ী থেকে বের হয়ে যেতে চাইলে সে এবং উৎ পেতে থাকা তার সহযোগীরা আমার ও আমার স্ত্রীর মুখ চে’পে ধরে পাশের জমির মাঝ খানে নিয়ে যায়।


সেখানে আমরা চিৎ’কার করতে চাইলে আমাদের প্রা’ণনা’শের হু’মকি দেয় এবং আমাকে নাসির ও তার সহযোগী শশীদল গ্রামের মৃ’ত উলফত আলীর ছেলে জমির হোসেন আ’টক করে রেখে মা’রধর করে এবং আমার মুখ চে’পে ধরে রাখে। অন্যদিকে আমার স্ত্রীকে ওই এলাকার নসু মিয়ার ছেলে লাবু মিয়া একই সময় ধ’র্ষণ করে এবং ওই গ্রামের মৃ’ত কাশেম মিয়ার ছেলে নজরুল ইসলাম, মৃ’ত আব্দুল খালেকের ছেলে সাদ্দাম হোসেন আমার স্ত্রীকে ধ’র্ষণের চেষ্টা করে। সেখান থেকে আমি ও আমার স্ত্রীর চিৎ’কারে এলাকাবাসীর সহায়ওতায় থা’না পুলিশ আমাদের উ’দ্ধার করে পুলিশ হে’ফাজতে নিয়ে আসে।


এ ব্যপারে ব্রা’হ্মণপাড়া থা’না অফিসার ইনচার্জ আজম উদ্দিন মাহমুদ ঘটনার সত্যতা স্বী’কার করে জানান, অ’ভিযুক্ত নাসির উদ্দিন, নজরুল ইসলাম, সাদ্দাম হোসেন, লাবু মিয়া ও জমির হোসেনকে আ’টক করা হয়েছে। এ ব্যপারে মা’মলা দা’য়েরের প্রস্তুতি চলছে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments