পরাগ মণ্ডল অপহরণের ‘মূল পরিকল্পকারী’ আমির গ্রেপ্তার

গাজীপুর/ঢাকা, নভেম্বর ২৪ (খবর তরঙ্গ ডটকম)- কেরানীগঞ্জের স্কুলছাত্র পরাগ মণ্ডল অপহরণের ‘মূল হোতা’ মুক্তার হোসেন আমীরকে গাজীপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ পর গ্রেপ্তারের দাবি করেছে পুলিশ। শনিবার ভোররাতে তাকে গাজীপুর সদরের মুদাফা তিলারগাতি এলাকার একটি বাড়ি থেকে আমীরকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে। গ্রেপ্তারের সময় আমিরে কাছ থেকে দুটি রিভলবার ও ৮৫ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার গভীর রাতে টঙ্গী এলাকায় অভিযান চালিয়ে আমিরকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে সকালে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়।

পুলিশ জানায়, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে ঢাকা মহানগর ডিবি পুলিশ শুক্রবার গভীর রাতে টঙ্গীতে আমির আলীর ভাড়া বাসায় অভিযান চালায়। পুলিশ বাসার দরজা খুলতে বললেও দরজা খোলেননি আমির। পরে এলাকাবাসীর সহায়তায় দরজা ভাঙতে গেলে রাত সাড়ে তিনটার দিকে আমির দরজা খুলতে বাধ্য হন।

ডিবির জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার ছানোয়ার হোসেন বলেন, দরজা খোলামাত্রই আমির আলী ডিবি পুলিশকে লক্ষ্য করে রিভলবার দিয়ে গুলি ছুড়তে থাকেন। এ সময় ডিবি পুলিশ পাল্টা গুলি চালালে মাথায় গুলিবিদ্ধ হন আমির। তাকে প্রথমে টঙ্গী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে শনিবার সকালে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তার কাছ থেকে অপহরণে ব্যবহূত দুটি রিভলবার ও ৮৫টি গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

ঢাকার অদূরে কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা পশ্চিম পাড়ার বাসার সামনে থেকে ১১ নভেম্বর সকালে মা লিপি মণ্ডল, বোন পিনাকী মণ্ডল ও গাড়িচালক নজরুল ইসলামকে গুলি করে শিশু পরাগকে অপহরণ করে মোটরসাইকেলে করে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

এর তিন দিন পর ৫০ লাখ টাকা মুক্তিপণ নিয়ে কেরানীগঞ্জের আটিবাজার এলাকায় অচেতন অবস্থায় পরাগকে রেখে যায় অপহরণকারীরা।

শিশু পরাগ অপহরণের ঘটনায় এ নিয়ে মোট ১১ জন গ্রেপ্তার হলো। তাদের মধ্যে তিনজন অপরাধ স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।