‘ধর্ম যার যার, উৎসব সবার’: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ঢাকা, ২৪ ডিসেম্বর (খবর তরঙ্গ ডটকম)- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অসাম্প্রদায়িক সমাজ গঠনের প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেছেন, ‘ধর্ম যার যার, উৎসব সবার’। তিনি বলেন, সরকার এমন একটি অসাম্প্রদায়িক সমাজ গঠনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, যেখানে সব ধর্মের মানুষ স্বাধীনভাবে নিজ নিজ ধর্ম সঠিকভাবে পালন করতে পারে। এই জন্যই আমাদের স্লোগান হচ্ছে- ‘ধর্ম যার যার, উৎসব সবার’। বড়দিন উপলক্ষে সোমবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের (বিসিএ) নেতারা গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করতে গেলে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে একটি সুখী-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের সেবা করার জন্য রাজনীতি করে। আওয়ামী লীগ নেতারা রাজনীতির মাধ্যমে জনগণকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে এবং এ ধারা অব্যাহত থাকবে।
ক্ষুধা-দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে খ্রিস্টান সমাজের সহযোগিতা কামনা করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা চাই দেশের মানুষের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে, যাতে সুখী-সমৃদ্ধ জীবনযাপন করতে পারে। সে জন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’ এ সময় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা, কৃষি, স্বাস্থ্য ও অর্থনীতিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বর্তমান সরকারের সফলতার কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে- শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বাসস্থানসহ মানুষের মৌলিক চাহিদাগুলো পূরণ করা। আর এই লক্ষ্য অর্জনে আওয়ামী লীগ সরকার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

এ সময় খ্রিস্টান ধর্মীয় মানুষদের জন্য সরকারের কল্যাণ তহবিলের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইতিমধ্যে সরকার খ্রিস্টান ধর্মীয় মানুষের সব চাহিদাই পূরণ করেছে।

অনুষ্ঠানে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ও বিসিএ সভাপতি প্রমোদ মানকিনের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে ধর্মবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শাহজাহান মিয়া, খ্রিস্টান নেতা আর্ক বিশপ পাত্রিক ও রোজারিও এবং বিসিএ এর সেক্রেটারি জেনারেল নির্মল রোজারিও বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানের শেষে খ্রিস্টান নেতাদের সাথে বড়দিনের কেক কাটেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর আগে প্রধানমন্ত্রীকে বড়দিন শুভেচ্ছা জানিয়ে কার্ড দেন খ্রিস্টান নেতারা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।