শিল্পী সোহরাবের মরদেহের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন সাংস্কৃতিক অঙ্গনসহ বিভিন্ন শেণী-পেশার মানুষ - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

শিল্পী সোহরাবের মরদেহের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন সাংস্কৃতিক অঙ্গনসহ বিভিন্ন শেণী-পেশার মানুষ



(খবর তরঙ্গ ডটকম)

ঢাকা, ২৮ ডিসেম্বর(খবর তরঙ্গ ডটকম)- প্রয়াত কিংবদন্তি নজরুল সঙ্গীত শিল্পী সোহরাব হোসেনের মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়েছে। প্রখ্যাত এই স্বরলিপিকার, প্রশিক্ষক ও বিশেষজ্ঞের মরদেহের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন সাংস্কৃতিক অঙ্গনসহ বিভিন্ন শেণী-পেশার মানুষ । শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে নজরুল সঙ্গীত সাধক সোহরাবের মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে আনা হয়। সেখান থেকে তার মরদেহ জানাজার জন্য মোহাম্মদপুরের ইকবাল রোডে নেওয়া হবে। সেখানে বাদ জুমা জানাজা শেষে শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হবে গুণী এই শিল্পীকে। ৯১ বছর বয়সী কিংবদন্তি এই শিল্পী বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কিডনিসহ বিভিন্ন সমস্যা ও বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ঘাড়ে প্রচণ্ড ব্যথা দেখা দিলে গত ২৯ নভেম্বর তাকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। স্বাস্থ্য পরীক্ষায় তার মূত্র-থলিতে ইনফেকশন ধরা পড়ে। এছাড়া কান, কিডনি, হার্টসহ শরীরের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিলে তাকে কৃত্রিমভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস দিয়ে রাখা হয়েছিল।

শিল্পী সোহরাব হোসেন ১৯২২ সালের ৯ এপ্রিল ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার রানাঘাটের কাছাকাছি আয়েশতলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার মাতৃবংশে গানবাজনার চল ছিল। খুব ছোটবেলা থেকে তিনি গান শুনতেন। এভাবেই তার ভেতর সঙ্গীতের বীজ অঙ্কুরিত হয়। ৯ বছর বয়সে রানাঘাটের সঙ্গীত শিক্ষক জয়নুল আবেদীনের কাছে গান শেখা শুরু করেন।

১৯৪৭ সালে দেশ বিভাগের পর ঢাকায় চলে আসেন। তিনি আব্বাস উদ্দীনের মাধ্যমে ৪১ জিন্দাবাজার লেনের একটি বাড়িতে ওঠেন। চাকরি পান ইনফরমেশন ডিপার্টমেন্টে। এ ছাড়াও তিনি নিয়মিত রেডিওতে অনুষ্ঠান এবং টিউশনও করতেন। ওস্তাদ আলাউদ্দীন খাঁ, শিল্পী শচীনদেব বর্মণ ও অঞ্জলি মুখার্জীর সাথে তার খুব ঘনিষ্ঠতা ছিল। তিনি আব্বাস উদ্দীনের সাথে বাংলাদেশের নানা স্থানে ঘুরেছেন এবং গান গেয়ে বেড়িয়েছেন।

চলচ্চিত্রেও প্লেব্যাক করেছেন সোহরাব হোসেন। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হলো ‘মাটির পাহাড়’, ‘যে নদী মরু পথে’, গোধূলির প্রেম’, ‘শীত বিকেল’ ও ‘এদেশ তোমার আমার’।

এছাড়া অভিনয়ে পারদর্শী সোহরাব হোসেন। কার্জন হল, মঞ্চে নাটকে অভিনয় করেছেন। তিনি তুলসী লাহিড়ীর ‘ছেঁড়া তাঁর’ নাটকে অভিনয় করে দর্শক নন্দিত হয়েছিলেন। দেশের অনেক জনপ্রিয় ও গুণী শিল্পী তার কাছে সঙ্গীতে তালিম নিয়েছেন। তার ছাত্র সছাত্রীদের মধ্যে আছেন সঙ্গীতজ্ঞ সন্জীদা খাতুন, শিল্পী খায়রুল আনাম শাকিল, আতিকুল ইসলাম, সাদিয়া মল্লিক, মাহমুদুর রহমান বেনু । ২০০৯ সালে শিল্পী সোহরাব হোসেন নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় সম্মাননা লাভ করেন।


পূর্বের সংবাদ