বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রত্যাহার

ঘুষ, জমি দখল ও আটক বাণিজ্যসহ নানা অভিযোগে রাজশাহী মহানগরের বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।তাকে খুলনা রেঞ্জ পুলিশে যোগদানের জন্য আদেশ দেয়া হয়েছে। রোববার ঢাকা পুলিশ সদর দপ্তর থেকে এ আদেশ দেয়া হয়।

সোমবার দুপুরে বোয়ালিয়া জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) রোকনুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আলমগীর হোসেন বর্তমানে ছুটিতে আছেন। ছুটি শেষ হলেই তিনি খুলনা রেঞ্জে যোগদান করবেন। বর্তমানে তার স্থলে (ওসি) তদন্ত হাফিজুর রহমান দায়িত্ব পালন করবেন। দুপুরে তাকে থানার চার্জ বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে বলে জানান রোকনুজ্জামান।

এরআগে গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) থেকে ওসি হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে বোয়ালিয়া থানায় যোগদানের পর বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়েন ওসি আলমগীর হোসেন। জামায়াত-শিবির আটকের নামে সাধারণ মানুষকে আটকের পর টাকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে।

সম্প্রতি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে আটক ও ছেড়ে দেয়ার ঘটনায় টাকার ভাগাভাগি নিয়ে থানায় এক দারোগার সাথে অপ্রীতিকর ঘটনার জড়িয়ে আলোচনায় আসেন ওসি আলমগীর।

সর্বশেষ গত ১৪ ডিসেম্বর ৫৬ লাখ টাকা ঘুষ নিয়ে নিজ থানা এলাকার বাইরে তিনি এবং কয়েকজন পুলিশ সদস্য জমি দখল করতে যান। এ নিয়ে সংঘর্ষ দুই পুলিশ সদস্য আহত হন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।