হাইকোর্টের রায় হলেই ডিসিসি নির্বাচন : প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ - খবর তরঙ্গ
শিরোনাম :

হাইকোর্টের রায় হলেই ডিসিসি নির্বাচন : প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ



ঢাকা, (খবর তরঙ্গ ডটকম)

হাইকোর্টের রায় হলেই ডিসিসি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ। বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে চট্টগ্রাম-১২ শূন্য আসনের নির্বাচনে আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত এক সভায় তিনি একথা জানান। সিইসি বলেন, আমরা ডিসিসি নির্বাচনের সকল প্রস্ততি সম্পন্ন করেছিলাম। এমনকি অনেক প্রার্থী মনোনয়ন পত্র ও সংগ্রহ করেছিল। কিন্তু হাইকোর্টের আদেশের জন্য আমাদের থেমে যেতে হয়। তিনি আরো বলেন, মামলাটির জন্য হাইকোর্টে একটি তারিখও নির্ধারিত ছিল। কোর্টে অনেকগুলো মামলার সিডিউলের জন্য সে তারিখে মামলাটির শুনানি হয়নি।

শুনানির জন্য আরেকটি তারিখ শিগগিরই হবে উল্লেখ করে রকিব বলেন, কোর্টে উঠলেই আমরা রায় পেয়ে যাব।

সীমানা পুননির্ধারণ নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, সীমান পুননির্ধারণ প্রায় সবগুলো আসনেই হবে।

প্রবাসীদের ভোটাদান ঝামেলার ব্যাপার উল্লেখ করে সিইসি বলেন, এতে জালভোট দিয়ে থাকে অনেকেই। তবুও তাদের জন্য পোস্টাল ব্যালটের ব্যবস্থা আছে। কেউ আমাদের কাছে আবেদন করলেই আমরা তাদের কাছে তা পাঠিয়ে দেব।

২ জানুয়ারি ভোটার তালিকার খসড়া প্রকাশ করা হয়েছে বলেও জানান সিইসি। তিনি বলেন, সকল উপজেলাতে ভোটার সংক্রান্ত তথ্যগুলো পাঠানো হয়েছে। সেখানে ভুল সংশোধন করা যাবে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত। ৩১ জানুয়ারি পূর্ণভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে।

চট্টগ্রাম-১২ আসনে নির্বাচনের জন্য আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে আছে জানিয়ে সিইসি বলেন, ইতোমধ্যে সেখানে দুজন নির্বাচন কমিশনার আইন-শৃংখলা ও সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সাথে সভা করে এসেছেন।

এছাড়া নির্বাচনের সময় সেখানে আনসার, পুলিশ, আর্মড পুলিশ, র্যা ব এবং নদী থাকায় সেখানে কোস্ট গার্ড সার্বক্ষণিক পাহারায় থাকবে বলেও জানান সিইসি।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন- নির্বাচন কমিশনার শাহনেওয়াজ, জাভেদ আলী, আবু হাফিজ, নির্বাচন কমিশন সচিব ড. সাদিক, সিনিয়র সহকারী সচিব ফরহাদ হোসেন, জনসংযোগ পরিচালক, এসএম আসাদুজ্জামান আরজু প্রমুখ।


পূর্বের সংবাদ